বান্দরবানে গৃহবধূ হত্যার অভিযোগ


নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান:

বান্দরবান পৌর এলাকার বালাঘাটার ভরাখালী এলাকায় নাছিমা আক্তার নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আপন বোন সুমি আক্তারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের উভয়ের স্বামী আনোয়ার হোসেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়দের অভিযোগে জানা যায়, শুক্রবার রাতে স্বামী আনোয়ার হোসেন তার বড় স্ত্রী নাছিমা আক্তারকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটায়। একপর্যায়ে সে জ্ঞান হারালে তাকে গলা চেপে ধরে হত্যা করা হয়। পরে আত্মহত্যা করেছে বলে স্থানীয়দের বুঝাতে তার মুখে কীটনাশক ঢেলে দিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করলে মরদেহ হাসপাতালে রেখেই স্বামী পালিয়ে যায় আনোয়ার হোসেন ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে আনোয়ার হোসেন তার স্ত্রী নাছিমা আক্তারের আপন ছোট বোন সুমিকে (১৭) বিয়ে করেন। ভরাখালী এলাকায় দুইটি ঘর তুলে আলাদাভাবে দুই স্ত্রীকে রেখেছেন। এ নিয়ে পরিবারে প্রায় ঝগড়া বিবাদ হতো। কয়েকবার এলাকায় সালিশ হলেও তার সমাধান না হওয়ার কারণে এটি হত্যাকাণ্ড বলে জানান স্থানীয়রা।

নিহতের আরেক বোন শাহিনা আক্তার বলেন, বোন বিষ পানে মারা গেছে বলে আমাকে ফোন করে তার স্বামী জানিয়েছে। পরে স্থানীয়রা জানায় স্বামী নিজেই তাকে মেরে আত্মহত্যা বলে প্রচারণা চালায়।

নিহতের মা জয়নাব বেগম বলেন, আমার মেয়েকে সবসময় শারীরিক নির্যাতন করতো। অনেকবার বিচার হয়েছে। বিচারের সময় সবার কাছে বড় মেয়েকে আর মারধর করবে না বলে কথা দেয়। কিন্তু তাকে আর বাঁচতে দিল না। আমি এ হত্যার বিচার চাই।

বান্দরবান সদর হাসপাতালের আবাসিক কর্মকর্তা ডা. ওমর শরীফ জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

বান্দরবান সদর থানান এসআই মিজানুর বলেন, এ ঘটনায় সদর থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। জড়িত থাকার সন্দেহে নিহতের ছোট বোন সুমি আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *