বান্দরবানের ছেলে চট্টগ্রামে খুন


নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান:

চট্টগ্রামের বাকলিয়ায় একটি বাসা থেকে হাত-পা বাঁধা ও মুখে টেপ লাগানো অবস্থায় আইনজীবী ওমর ফারুক বাপ্পীর (৪০) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার(২৫ নভেম্বর) সকালে নগরীর চকবাজার থানার কে বি আমান আলী রোডে বড় মিয়া মসজিদের সামনে একটি ভবনের নিচ তলার বাসা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের বাড়ি বান্দরবান জেলার আলীকদম উপজেলার চৌমুহনী গ্রামের আলী আহমেদ এবং মা মনোয়ারা বেগমের ছেলে।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, হাত-পা বাঁধা ও  মুখে টেপ দিয়ে মোড়ানো এবং পুরুষাঙ্গ কাটা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকে কেউ শ্বাসরোধ করে খুন করেছে বলে তার ধারণা।

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু হানিফ বলেন, বাপ্পী চট্টগ্রাম আদালতে আইন পেশায় ২০১৩ সালে তিনি বারে অন্তর্ভুক্ত হন।

পারিবারিক কহলের জের ধরে ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে বাপ্পীর স্ত্রী রাশেদা বেগম বাদি হয়ে তার বিরুদ্ধে যৌতুকের জন্য নির্যাতনের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন। এর আগে ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে নগরীর বাকলিয়া থানায় এবং ২০১৭ সালের এপ্রিলে কোতয়ালী থানায় বাপ্পী তার স্ত্রী রাশেদার বিরুদ্ধে দুইটি মামলা দায়ের করেছিলেন।

এদিকে মরদেহ উদ্ধারের সময় ওই বাসায় আর কাউকে পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন চকবাজার থানার ওসি নুরল হুদা। তিনি বলেন, বাড়ির মালিক জানিয়েছেন এক নারী বাসাটি ভাড়া নিয়েছিলেন। গত বৃহস্পতিবার ওই নারী বাসায় উঠেন।  তার নাম-ঠিকানা বাড়ির মালিক রাখেননি।

শনিবার ভোরে দারোয়ান দেখতে পান, বাসার দরজা খোলা। ভেতরে গিয়ে তিনি একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ওসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *