বাঙালি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মজিদ গ্রেফতার


♦ জেলারের উপর হামলা ও সরকারী কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ

♦ আবদুল মজিদের অস্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:
খাগড়াছড়ি জেলা কারাগারের জেলারের উপর হামলা ও সরকারী কর্তব্য কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ বাঙালি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মজিদ গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে আব্দুল মজিদ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। এদিকে আবদুল মজিদের প্রতিবাদে খাগড়াছড়ি বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাহাদত হোসেন টিটু জানান, খাগড়াছড়ি জেলা কারাগারের জেলার আবু ফাত্তাহ বাদী হয়ে তার উপর হামলা ও সরকারী কর্তব্য কাজে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগে মঙ্গলবার দুপুরে বাঙালি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মজিদকে প্রধান করে আরো ২০/২৫ অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামী করে খাগড়াছড়ি সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, আব্দুল মজিদ সকাল ১০টার দিকে খাগড়াছড়ি কারাগারের সংরক্ষিত এলাকার জায়গা জোরপূর্বক দখল করতে আসে। কারারক্ষীরা বাধা দিলে আব্দুল মজিদ লোকজন নিয়ে কারারক্ষীদের উপর ধারালো অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালায় । এতে জেলারসহ কয়েকজন কারারক্ষী আহত হয়।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে আব্দুল মজিদ জানান, সকালে জেলারের নেতৃত্বে খাগড়াছড়ি কারাগারের রক্ষীরা তার বসতবাড়ী ভাংচুর করছিল। এ সময় তিনি ছবি তুলতে গেলে তাকে জেলারসহ কারারক্ষীরা মারধর করে।

এদিকে বিকালে তাকে খাগড়াছড়ি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোরশেদুল আলমের আদালতে আবদুল মজিদকে তোলা হলে আদালত জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ দিকে আব্দুল মজিদকে আটকের প্রতিবাদে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ ও বৃহত্তর পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের ব্যানারে খাগড়াছড়ি শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক ঘুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় বিক্ষোভ মিছিলে অংশগ্রহণকারী আব্দুল মজিদকে মুক্তি না দিলে কঠোর কর্মসূচী ঘোষণার হুমকি দেয়।

আবদুল মজিদকে গ্রেফতারের নিন্দা জানিয়েছেন, পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আলকাছ আল মামুন ভুঁইয়া। নিজের ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে তিনি বলেন, বিনা কারণে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও খাগড়াছড়ি পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার জনপ্রিয় তরুণ রাজনৈতিক মো: আব্দুল মজিদকে অাজ (৮মে)সকালে খাগড়াছড়ি কারারক্ষী (জেলসুপার) কর্তৃক অপদস্থ ও শারীরিকভাবে প্রহার করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিকে এভাবে মারধর করা অাইনের লঙ্ঘন। তাই দোষীদের বিচার দাবী করছি। অন্যথায় অান্দোলন ।

হরতালের আল্টিমেটাম
এদিকে আবদুল মজিদকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ ফরাজী সাকিব। এক বিবৃতিতে তিনি জানিয়েছেন, পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল মজিদকে পার্বত্য বাঙ্গালীদের নেতৃত্ব শূন্য করার ষড়যন্ত্রের লক্ষে খাগড়াছড়ি জেল সুপার আবু ফাতাহ কর্তৃক অন্যায়ভাবে ব্যাপক মারধরপূর্বক গ্রেফতার করেছে খাগড়াছড়ি জেলা সদর পুলিশ।পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ এই ঘটনার তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে এবং অনতিলম্বে তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানাচ্ছে। অন্যথায় আগামীকাল ০৯/০৫/২০১৮ রোজ বুধবার থেকে খাগড়াছড়ি জেলায় আব্দুল মজিদের মুক্তি এবং খাগড়াছড়ি জেল সুপার আবু ফাতাহকে প্রত্যাহারের দাবীতে অনির্দিষ্টকালের জন্য হরতাল ঘোষণা করা হবে।

অপরদিকে আব্দুল মজিদের মুক্তির দাবীতে মিছিল করার কথা অস্বীকার করেছে বৃহত্তর পার্বত্য বাঙালি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি মো: মাঈন উদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক এস এম মাসুম রানা।
এক বিবৃতিতে তারা বলেন, ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল এর ব্যক্তিগত জায়গা দখল নিয়ে যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সৃষ্টি এটি তার ব্যক্তিগত।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বৃহত্তর পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের নাম ব্যবহার করায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, কথিত প্রতিবাদ সভায় আমাদের সাংগঠনের নাম ব্যবহার করে আমাদের বির্তকিত করার অপচেষ্টা করা হয়েছে।আজকের কথিত প্রতিবাদ সমাবেশের সাথে বৃহত্তর পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ কোনভাবে সম্পৃক্ত নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *