বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ


Ramu Sima Bihar News Pic (1) 13.11.15

রামু প্রতিনিধি :
বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। সকল সম্প্রদায়ের মানুষের সহবস্থানের সম্প্রীতির অঞ্চল রামু দেখতে আসছেন বিদেশের পর্যটকরা। রামুর অনাকাংখিত ঘটনার পরে এ অঞ্চলের বৌদ্ধরা কেমন আছেন দেখে গেছেন জাতিসংঘসহ বহু দেশের পর্যটক-মন্ত্রীরা। রামুর বৌদ্ধরা ভালো আছেন কিনা দেখতে কয়েক দিনের মধ্যে আসবেন আরো ৭ দেশের মন্ত্রী। বর্তমান সরকার সকল ধর্মের মানুষের উন্নয়নে কাজ করছেন। সম্প্রীতির জন্য কাজ করছেন। রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারে দানোত্তম শুভ কঠিন চীবর দানোৎসব ও উপ-সংঘরাজ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল এসব কথা বলেন।

শুক্রবার বিকালে অনুষ্ঠিত ধর্মালোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, একুশে পদকে ভূষিত রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারের অধ্যক্ষ উপ-সংঘরাজ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের।

সকাল ১০টায় বিহার প্রাঙ্গনে জাতীয় ও ধর্মীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারে কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ১০ পদাতিক ডিভিশন রামু সেনানিবাসের জিওসি মেজর জেনারেল আতাউল হাকিম সরওয়ার হাসান।

ভোরে বুদ্ধপুজার মধ্যদিয়ে কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়। ধর্মালোচনার শুরুতে মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করেন, অষ্টেলিয়ান বৌদ্ধ ভিক্ষু ডিগামাদুলি বিমলানন্দ মহাথের। ধর্মদেশনা করেন, সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার মহাসচিব এস লোকজিৎ থের, সদ্ধর্ম আলোচকের বক্তব্য রাখেন, প্রিয় রত্ন থের, সারমিত্র থের, করুণাশ্রী থের, শীলমিত্র থের ও শীলপ্রিয় ভিক্ষু।

রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারের ভিক্ষু প্রজ্ঞানন্দ’র সঞ্চালনায় ধর্মালোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, শ্রীলংকার বৌদ্ধ ভিক্ষু চামিন্দা রাজালাক্ষে, রামু থানা ওসি (তদন্ত) মো. কায় কিসলু, সাংবাদিক ইউনিয়ন, কক্সবাজারের সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেল প্রমুখ।

শীলপ্রিয় ভিক্ষু’র পবিত্র ত্রিপিটক থেকে পাঠে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহার পরিচালনা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তরুন বড়ুয়া, ইউপি সদস্য অরূপ বড়ুয়া কালু, অনুষ্ঠান উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক শিপন বড়ুয়া ও সদস্য সচিব বিপুল বড়ুয়া প্রমুখ।

এ উৎসব উপলক্ষে বৃস্পতিবার রাতে রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহার প্রাঙ্গনে রাঙ্গামাটির ৪০ জন রাখাইন তাঁত শিল্পী বুনন করেন চীবর। ওই চীবর শুক্রবার বিকালের অনুষ্ঠানে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের দান করেন রামুর বৌদ্ধরা। বিহার প্রাঙ্গনে চীবর বুনন উপলক্ষে বুদ্ধ কীর্তন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারের দানোৎত্তম শুভ কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে বাংলাদেশী বৌদ্ধ ভিক্ষুদের সর্বোচ্চ সাংঘিক সংগঠন সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভা কর্তৃক উপ-সংঘরাজ পদে অবিষিক্ত হওয়ায় বিহার অধ্যক্ষ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথেরকে বর্ণাঢ্য সংবর্ধনা দেয়া হয়। তিনি আরো জানান, এ মহতি পূণ্যময় অনুষ্ঠানের সভাপতি রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারের অধ্যক্ষ উপ-সংঘরাজ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের ইতিপূর্বে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক একুশে পদকে ও মায়ানমার সরকার কর্তৃক ‘অগ্গমহাসদ্ধম্মজ্যোতিকধ্জ’ উপাধিতে ভূষিত হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *