বর্তমান সরকারের আমলে সনাতন ধর্মালম্বীরা স্বাচ্ছন্দে নিজ নিজ ধর্মীয় উৎসব পালন করছে: কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা


নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা:

খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেছেন, জগন্নাথ দেবের আদর্শ থেকে শিক্ষা নিয়ে সনাতনী সম্প্রদায়ের লোকজন আরো ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের নিজ নিজ ধর্ম পালন করবে।বর্তমান সরকারের নানা উন্নয়নমুখী কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নের ফলে সনাতন ধর্মালম্বীরা স্বাচ্ছন্দে নিজ নিজ ধর্মীয় উৎসব পালন করতে আরো উৎসাহিত হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার বর্তমান সরকার এটা প্রমান করেছে।

তিনি রোববার বেলা ১১টার দিকে মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় শ্রী শ্রী জগন্নাথ মন্দিরে ভগবান জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও পুজোৎসবের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় শ্রী শ্রী জগন্নাথ মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরার সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও পুজোৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাটিরাঙ্গা জোন অধিনায়ক লে. কর্ণেল কাজী শামশের উদ্দিন পিএসসি ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো. শামছুল হক বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

জাতি গোষ্ঠির মধ্যে ঐক্যের বন্ধন সৃষ্টি করার আহ্বান জানিয়ে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেছেন, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি জনগণকেও সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে।  তবেই মন্দিরসহ সব ধর্মীয় উপাসনালয়ের কাঙ্খিত উন্নয়ন সম্পন্ন হবে। তিনি জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জনমত তৈরিসহ নিরাপত্তাবাহিনী ও পুলিশকে সহযোগিতা করারও আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যান সংসদের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মনিন্দ্র কিশোর ত্রিপুরা, মাটিরাঙ্গা ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রশান্ত কুমার ত্রিপুরা, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক সুবাস চাকমা, মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হারুন অর রশীদ ফরাজী, মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিলন কান্তি ত্রিপুরা, মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় রক্ষাকালী মন্দিরের সভাপতি বাবুল আইচ ও সাধারণ সম্পাদক স্বপন কান্তি পালসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সনাতন সম্প্রদায়ের জগন্নাথ ভক্তবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে ভগবান জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উপলক্ষ্যে পুজোৎসবের উদ্বোধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *