parbattanews bangladesh

বরকলে মারপিটের ঘটনায় ২৭জনের বিরুদ্ধে মামলা, আটক ৫

 

নিজস্ব প্রতিনিধি:

রাঙামাটির বরকল উপজেলায় ৪নং ভূষনছড়া ইউনিয়নের এরাবুনিয়া গ্রামে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুনের গ্রুপের সাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোতালেব মুন্সির পক্ষের লোকজনের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হলে উভয় পক্ষের ৮জন আহত হয়।

এঘটনাকে কেন্দ্র করে মোতালেব মুন্সির মেয়ে রাফেজা বেগম বরকল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন। বরকল থানায় মামলা নং-০১। নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ১০/৩০ তৎসহ ১৪৩, ৩২৩, ৩২৪, ৩২৫, ৩৮৫, ৩৭৯, ৩০৭, ৫০৬-৩৪ দঃবিঃ।

মামলার আসামিরা হলেন- ৪নং ভূষনছড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও মামুন চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা সবুর তালুকদার, এক সময়ে জামায়েত ইসলামীর উপজেলা আমীর ছিলেন বর্তমানে কৃষক লীগের সভাপতি সোলাইমান হোসেন, শামসুল আলম, মো. জুয়েল, ইলিয়াছ, আমীর হোসেন, মাহফুজ, জাহাঙ্গীর, হাসান, ইলিয়াছ, সোহেল, আরিফ, মো. হাসান, নুরুল করিম, নুরু মিয়া, এমদাদ, মোশারফ হোসেন, সীবলু, সাইদুল, মামুন, আলী করিম, মো. শাকিব, সিরাজুল, রহমান, বেল্লাল ও বায়েজীদ সহ অজ্ঞাতনামা আরো ১৫জন।

আটককৃত ৫জন  হলেন, মো. ইলিয়াছ, শামসুল আলম, জুয়েল, এমদাদ ও এজাহারের বাইরে মো. কামরুলকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

বরকল থানার ওসি মফজল আহম্মদ খান জানান, মারামারির মোতালেব মুন্সির পক্ষের লোকজন মামলা করেছে সেই মামলায় ৫জনকে আটক করা হয়েছে। মামুন চেয়ারম্যানের পক্ষের লোকজনও ২৮জনের নামে অভিযোগ দিয়েছে। এখনো মামলা রেকর্ড হয়নি।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, ভূষনছড়া ইউনিয়নে মামুনূর রশিদ মামুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তার পক্ষের কিছু উশৃঙ্খল যুবক এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করছে। এলাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি করছে। আবার মামুন চেয়ারম্যানের পক্ষের লোকজন বলছে এলাকায় কিছু দুষ্ট প্রকৃতির লোকজন তারা তাদের অপকর্ম করার সুযোগ না পাওয়ায় চেয়ারম্যান মামুনের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন মেম্বার জানান, মামুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এবং তার বাবা জামায়েত ইসলামীর উপজেলা আমীর থেকে আওয়ামী কৃষকলীগে যোগ দিয়ে সভাপতি পদ পাওয়ার পর থেকে এলাকায় ক্ষমতাশালী হয়ে উঠে। পিতা ও পুত্রের ক্ষমতার দাপটে বাঙালি এলাকার সাধারণ মানুষ যেমনি নানা ভাবে নির্যাতিত অত্যাচারিত হচ্ছে তেমনি ইউনিয়নের পাহাড়ি বাঙালির মাঝে দুরত্ব সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে ভূষনছড়া ইউনিয়নটি অচলাবস্থা বিরাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন ওই মেম্বার।