বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে মানিকছড়ি চ্যাম্পিয়ান


মানিকছড়ি প্রতিনিধি:

গুইমারা রিজিয়নের সিন্দুকছড়ি জোনের অধীনস্থ উপজেলা রামগড়, গুইমারা ও মানিকছড়ির ক্রীড়ার মানোন্নয়নে সেনাবাহিনীর আয়োজনে বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালে মানিকছড়ি চ্যাম্পিয়ান ও সিন্দুকছড়ি রানার আপ হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে।

রবিবার বিকালে ১টায় শুরু হওয়া ফাইনাল খেলায় মানিকছড়ি ১নং ইউনিয়ন পরিষদ একাদশ টসে জিতে ফিল্ডিং এ সিন্ধান্ত নিয়ে খেলা শুরু করলে সিন্দুকছড়ি সন্মাননা ও চেতনা একাদশ ২৫ ওভারের খেলায় ৮ উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ২১২ রান। জবাবে মানিকছড়ি ১নং ইউনিয়ন পরিষদ একাদশ অনায়াসে ৪ উইকেটে ৯ বল হাতে রেখে বিজয় নিশ্চিত করেন।

সিন্দুকছড়ি জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল রুবায়েত মাহমুদ হাসিব, পিএসসি’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ.কে.এস সাজেদুল ইসলাম ডাব্লিউ,পিএসসি,জি।

এ সময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বেগম সাজেদুল ইসলাম, পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, পাজেপ সদস্য এম.এ. জব্বার, উপজেলঅ নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ, গুইমারা সরকারি ডিগ্রি কলেজ অধ্যক্ষ মো.নাজিম উদ্দীন, সিন্দুকছড়ি জোন উপ-অধিনায়ক মেজর মো. তৌহিদ সালাহ উদ্দীন, গুইমারা উপজেলা চেয়ারম্যান উশেপ্রু মারমা, মানিকছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান ম্রাগ্য মারমা, নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মো, জয়নাল আবেদীন, গুইমারা ইউপি চেয়ারম্যান যথাক্রমে মেমং মারমা, রেদাক মারমা, সাথোয়াই চৌধুরী, মানিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান যথাক্রমে মো. শফিকুর রহমান ফারুক, ক্যয়জরী মহাজন, মো. আবুল কালাম আজাদ, অফিসার ইনচার্জ মানিকছড়ি মুহাম্মদ রশীদ, গুইমারা অফিসার ইনচার্জ বিদ্যুৎ বড়ুয়া, মানিকছড়ি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. সফিউল আলম চৌধুরী প্রমুখ।

ফাইনাল খেলায় বিজয়ী ও বিজিত দলের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ.কে.এস সাজেদুল ইসলাম, পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীসহ অন্যান্য অতিথিরা।

এসময় প্রধান অতিথি বলেন, এ অঞ্চলে খেলাধূলার মানোন্নয়নে সেনাবাহিনী প্রতিনিয়ত তৃণমূলে কাজ করছে। এ মহান স্বাধীনতার মাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি সফল টুর্নামেন্ট সফল করায় সিন্দুকছড়ি জোনের সকল সদস্য, জনপ্রতিনিধি, পুলিশ, প্রশাসনিক সকল কর্মকর্তা, খেলোয়াড়, আম্পার সকল কে সেনাবাহিনী পক্ষ থেকে অভিনন্দন।

তিনি আরও বলেন, এখানে যে মানের খেলোয়াড় রয়েছে, তাদেরকে নিয়মিত উৎসাহ ও টুর্নামেন্টে আবদ্ধ রাখতে পারলে এরাই দেশকে একদিন বিশ্বদরবারে আরও সন্মানিত করবে। আগামীতে রিজিয়ন স্কুল পর্যায়ে আরও টুর্নামেন্ট আয়োজন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *