বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের রায় কার্যকরের দাবি মেমং মারমার


গুইমারা প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির সকল উপজেলার ন্যায় গুইমারা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে মহান স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষ্যে সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে গুইমারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে থেকে একটি শোক র‌্যালি বের হয়ে গুইমারা বাজারের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে  গুইমারার অস্থায়ী উপজেলা ভবনের মিলনায়তনে এসে এক আলোচনা সভার মাধ্যমে র‌্যালিটি শেষ হয়।

শোক সভায় মেমং মারমা বলেন, আজ এ শোক সভায় বার বার যে বিষয়টি আমাদের কষ্ট দিচ্ছে তাহলো, যে সব নরপশুরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে র্নিমমভাবে হত্যা করে এখনো বিদেশের মাটিতে অনায়সে ঘুরে বেড়াচ্ছে, অনতি বিলম্বে এদেশের মাটিতে ফিরিয়ে এনে তাদের বিচারের রায় কার্যকর করার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।

বিএম মশিউর রহমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস। স্বাধীনতার স্থপতি, মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী। ১৯৭৫ সালের শোকাবহ এইদিনে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়।বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে হয়ত এ দেশটি আজ স্বাধীন দেশ হিসেবে বিশ্বের মানচিত্রে থাকতোনা, আজ আমরা এ মহান নেতার আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন, বিএম মশিউর রহমান গুইমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার, গুইমারা থানা অফিসার ইনর্চাজ যোবায়েরুল হক, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ঝর্না ত্রিপুরা ১নং গুইমারা সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেমং মারমা সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, গুইমারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ  বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

দিবসটি উপলক্ষ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি, আধা সরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত ভবনে অর্ধনমিতভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এছাড়া জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *