পেকুয়ায় লিটন বাহিনীর ফাঁকা গুলিবর্ষণ আতঙ্ক এলাকাবাসী 


পেকুয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের পেকুয়ায় মৎস্য ঘেরের পানি চলাচলের একটি সরকারি কালভার্ট দখলে নিতে অস্ত্রের মহড়া ও ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেছে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী লিটন গ্রুপের সদস্যরা।

সোমবার (২৭ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোঁয়াখালী বকসু চৌকিদার পাড়ার স্কুল ঘোনা নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় সন্ত্রাসীরা তিন রাউন্ড ফাকা গুলিবর্ষণ করে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কয়েক বছর পূর্ব থেকে জমি বিরোধের জের ধরে এই এলাকার কালভার্টটি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠে স্থানীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল লিটন বাহিনী। লিটন বাহিনীর প্রধান লিটন হেলালী একই এলাকার হেলাল উদ্দিনের পুত্র। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও অস্ত্র আইনে একাধিক মামলা রয়েছে। তাকে ধরতে একাধিকবার এ এলাকায় অভিযান চালিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

তারা আরো জানান, লিটন বাহিনীর সদস্যরা ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙ্গীয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে এলাকায় ভীতি ছড়িয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় সোমবার সকালে লিটন বাহিনীর সশস্ত্র সদস্যসহ একই এলাকার শহিদুল ওসমানের ছেলে আরমানুল ওসমান, নেজাম উদ্দিন প্রকাশ আছু গুলিবর্ষণ করে। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে স্থানীয় বাসিন্দারা।

বিরোধীয় জমির মালিক ফরুক আহমদ চৌধুরী গং জানায়, জমিটি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। বিরোধিয় পক্ষ  ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত জমিটি দখল চেষ্টা চালিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিতায় আজ বিরোধীয় জমির পার্শ্ববর্তী মৎস্য ঘেরে সন্ত্রাসীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এসময় ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হলে অস্ত্রধারীরা পালিয়ে যায়। যাওয়ার পথে সন্ত্রাসীরা ফরুক আহমদের ভাতিজা হাজী জহিরুল ইসলামের বসতবাড়িতে ভাংচুর চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা পাঁচ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জহিরুল ইসলাম খাঁন বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *