পাহাড় ধসে নিহত পরিবারের একমাত্র বেঁচে যাওয়া শিশু আঁখিমনি


লামা প্রতিনিধি:

বান্দরবানের লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নে পাহাড় ধসে একই পরিবারের ৩ সদস্য নিহতের ঘটনায় বেঁচে যায় ওই পরিবারের একমাত্র সদস্য ৫ বছরের শিশু আঁখিমনি। সে এখনও বুঝে উঠে নাই যে, তার মা-বাবা দুনিয়াতে বেঁচে নেই।

পাহাড় ধসের সময় পাশের রুমে অবস্থান করায় আঁখিমনি মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে যায়।

বুধবার (৪ জুলাই) দুপুরে দাদা মাইনউদ্দিনের কোলে চড়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে এসে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেয়া ২৫ হাজার টাকা গ্রহণ করেছে শিশু আঁখি।

বাবা মো. হানিফ (৩০), মা রাজিয়া বেগম (২৫) ও ছোট বোন হালিমা বেগম (৩) কে নিয়ে হাঁসিখুশিতে মেতে থাকতেন ৫ বছরের শিশু আঁখিমনি। মঙ্গলবার (৩ জুলাই) দুপুরে মুষলধারে বৃষ্টি হলে পাহাড় ধসে আঁখিমনি’র পরিবারের ৩ জনই নিহত হয়। দাদা মাইনউদ্দিনই আঁখিমনি’র একমাত্র ভরসা।

লামা উপজেলা নিবার্হী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি জানিয়েছেন, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহত পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

বান্দরবান জেলা পরিষদের সদস্য মো. মোস্তাফা জামাল জানিয়েছেন, বান্দরবান জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে নিহত পরিবারকে ৩০ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

পুত্র, পুত্রবধু ও নাতনি হারিয়ে নির্বাক মাইনউদ্দিন জানালেন, আঁখিমনির ভবিষ্যৎ আল্লাহ জানেন। আমি যতদিন বেঁচে আছি, তাকে চেষ্টা করবো পরম মমতায় লালন পালন করতে।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি শিশু আঁখির হাতে শুকনো খাবার ও নতুন জামা কাপড় তুলে দিয়েছেন এবং তাকে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *