পাহাড়ে আওয়ামী লীগকে ঠেকাতে জেএসএস ও ইউপিডিএফ দিশেহারা: দীপংকর


 

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি:

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য দীপংকর তালুকদার বলেছেন,পাহাড়ে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাওয়ায় পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠনগুলো দিশেহারা হয়ে পড়েছে।

রোববার (৮এপ্রিল ) দুপুরে রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত রাঙামাটি যুব মহিলা লীগের সন্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ কয়েকবার ক্ষমতায় থাকলে তাদের ভাত বন্ধ হয়ে যাবে। এজন্য সামনে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আ’লীগকে ঠেকাতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এবং ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এক জোট হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কর্মকান্ডকে বাধা প্রদান করতে চলতি বছরের ২৮.২৯ এবং ৩০ মার্চ তৃণমূল পর্যায় থেকে তাদের বৈঠক হয়েছে বলে তিনি জানান। তিনি আরও জানান, জেএসএস ইউপিডিএফকে পছন্দ করে না এবং হিউম্যান রাইডসকে বলেছে তারা নাকি সন্ত্রাসী দল। কিন্তু এখন নিজেদের স্বার্থে এক হয়েছে।

দীপংকর বলেন, রাঙামাটি আসনের জাতীয় সংসদের সদস্য ঊষাতনের বিরুদ্ধে জনগণ কর্তৃক অভিযোগের রয়েছে পাহাড়। এসব অভিযোগগুলো ছাপিয়ে দিয়ে জনগণকে তার কার্যকলাপ সম্পর্কে জানানো হবে।

তিনি আরও বলেন, পাহাড়ে আওয়ামী লীগের নেতাদের বন্ধুকের নলে ভয় দেখিয়ে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হচ্ছে। এখন প্রশ্ন হলো যেখানে আমাদের কোন পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি অথচ সেখানে ওমুক কমিটির সহ-সভাপতি, সাংগঠনিক সম্পাদক পদত্যাগ করেছে। আমরা পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করলে তা পদত্যাগ হবে। কিন্তু আমরা তো পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করিনি।

এজন্য দলের নেতা-কর্মীদের সজাগ দৃষ্টি রেখে দেশের মানুষের জন্য, দলের জন্য নিবেদিত হয়ে কাজ করার পরামর্শ প্রদান করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের এ নেতা।

দীপংকর জানান, শান্তি চুক্তি করেছে আওয়ামী লীগ, চুক্তি বাস্তবায়ন করবে আওয়ামী লীগ। পাহাড়ে আওয়ামী লীগের উন্নয়নের জোয়ার বইছে। তাই আঞ্চলিক কিছু সংগঠন এ উন্নয়নের গতি ত্বরানিত করতে নানা ষড়যন্ত্র লিপ্ত। আওয়ামী লীগ নেতাদের উপর হত্যাযজ্ঞ, গুম এবং নির্যাতন চালাচ্ছে। কারণ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে তাদের ভাত বন্ধ হবে যাবে বলে তিনি বলেন।

সন্মেলনে উদ্বোধক ছিলেন, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল।

জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি রোকেয়া আক্তারের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি নার্গিস মাহাজাব, দপ্তর সম্পাদক বীণা চৌধুরী, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিতা দেওয়ান এবং জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নূর মোহাম্মদ কাজল প্রমুখ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *