পাহাড়ের মানুষকে অবৈধ অস্ত্রধারীদের জিম্মি দশা থেকে মুক্ত করতে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান


রাঙামাটি প্রতিনিধি:

পাহাড়ের মানুষকে অবৈধ অস্ত্রধারীদের জিম্মি দশা থেকে মুক্ত করতে সকল জনগোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য দীপংকর তালুকদার।

তিনি বলেন, পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্রের মহড়া দিয়ে পার্বত্য পরিস্থিতি যারা অস্থিতিশীল করে তুলছে তাদের বিরুদ্ধে সবাইকে রুখে দাঁড়াতে হবে।

দীপংকর বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের শান্তি ও কল্যাণে রাজনীতি করে। তাই আওয়ামী লীগ সরকারের প্রতি জনগণ আস্থাশীল। পার্বত্য অঞ্চলের এমন কোন জায়গা নেই যেখানে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। তিনি বলেন, অবৈধ অস্ত্র দিয়ে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলো আওয়ামী লীগ সরকারের সকল উন্নয়ন কাজে বাধা দিয়ে উন্নয়নে বাঁধাগ্রস্ত করছে।  তারা চাইনা পার্বত্য অঞ্চলে উন্নয়ন হোক। আগামী জাতীয় নির্বাচনে জনগণই ভোটের মাধ্যমে এর জবাব দেবে। সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমকে চলমান ও শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালি করতে তিনি সকলকে একযোগ কাজ করার আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার (২জানুয়ারি) সকালে রাঙ্গামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় শেখ ফজিলাতুন্নেছা স্মৃতি ভবন উদ্বোধন শেষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ত্রিদীব কান্তি দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য কামাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি নিখিল কুমার চাকমা, সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য সান্তনা চাকমা, পরিষদ সদস্য মনোয়ারা আক্তার জাহান, পরিষদ সদস্য সবির কুমার চাকমা, পরিষদ সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমাসহ আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার। জাতির পিতার সেই স্বপ্ন পূরনে তার সুযোগ্য কণ্যা বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষ সকল সম্প্রদায়ের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষিসহ বিভিন্ন সেক্টরের মাধ্যমে দেশের প্রতিটি এলাকায় জনগণের ভাগ্যউন্নয়ন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, নিরক্ষরমুক্ত বাংলাদের গড়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী বছরের প্রথম দিনেই শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ করছে। বর্তমান সরকার পার্বত্যবাসীর প্রতি খুবই আন্তরিক বলেই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিশুদের জন্য নিজ নিজ ভাষায় পাঠ্যবই বিতরণ করছে। দেশকে সর্বোচ্চ উন্নয়নের শিখরে পৌঁছাতে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি সরকারের সার্বিক উন্নয়ন কার্যক্রম চলমান রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

আলোচনাসভার আগে অতিথিরা শেখ ফজিলাতুন্নেছা স্মৃতি ভবন উদ্বোধন উদ্বোধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *