পাহাড়ি সংগঠনগুলোর আধিপত্য বিস্তারের জেরে খাগড়াছড়ির স্বনির্ভর বাজারে সন্ত্রাসীদের শতাধিত রাউন্ড গুলিবর্ষণ: দীঘিনালায় নিহত ১


নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

পাহাড়ি সংগঠনগুলোর এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জেরে খাগড়াছড়ি শহরের স্বনির্ভর বাজারে মঙ্গলবার (২২ মে) দুপুরে শতাধিত রাউন্ড গুলিবর্ষনের ঘটনা ঘটেছে।

আতংকে বাজারের সকল দোকানপাট বন্ধ হয়ে গেছে। বাড়ী-ঘর ছেড়ে পালিয়ে যায় এলাকাবাসী। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী পুরো এলাকাটি তল্লাসী চালাচ্ছে। পুলিশ এ ঘটনার জন্য প্রসীতের ইউপিডিএফ-কে দায়ী করেছে।

এদিকে জেলার দীঘিনালায় প্রতিপক্ষের গুলিতে বর্ষা চাকমা নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। সোমবার (২১ মে) দিবাগত রাত ২টার দিকে নিজ বাসায় তাকে গুলি করে হত্যা করে। নিহত বর্ষা চাকমা ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের কর্মী বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে অন্তত ৩০/৩৫ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী দুই দিক থেকে গুলি ছুড়তে ছুড়তে স্বনির্ভর বাজার এলাকায় ঢুকে পড়ে। এ সময় সন্ত্রাসীদের গুলির আওয়াজে পুরো এলকা প্রকম্পিত হয়।

এ সময় বাজারের ব্যবসায়ী দোকানপাট বন্ধ করে স্থানীয় বিজিবি সেক্টরের গেইটে আশ্রয় নেয়। খবর পেয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা আবার গুলি ছুড়তে ছুড়তে পালিয়ে যায়। তবে হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, হঠাৎ করে দুপুরে রাবার কারখানা এলাকার দিকে গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়। তার কিছুক্ষণ পরে নদীর পশ্চিম পাড় থেকেও গুলির শব্দ আসে। এতে স্বনির্ভর বাজারের ক্রেতা-বিক্রেতার মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে বিজিবির সদস্যরা এসে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

পেড়াছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান তপন ত্রিপুরা জানান, উত্তর খবংপুড়িয়া এলাকায় গুলাগুলি হয়েছে। তবে কাদের মধ্যে হয়েছে জানি না। পরিস্থিতি এখন থমথমে।

পরে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা খাগড়াছড়ি-পানছড়ি আঞ্চলিক সড়কে যানবাহন থামিয়ে সন্দেহভাজন ব্যক্তি ও পরিবহনে তল্লাশি করে। ঘটনার পর খবংপুড়িয়া ও স্বনির্ভর এলাকায় অভিযান চালায় যৌথবাহিনী।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ওসি সাহাদাত হোসেন টিটো বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্বণির্ভর বাজারে প্রসীতের ইউপিডিএফ এলাকায় আতংক সৃষ্টির জন্য পরিকল্পিতভাবে গুলিবর্ষণ করেছে। এ সময় প্রায় শতাধিক রাউন্ড গুলিবর্ষণ হয়েছে বলে তিনি জানান।

তবে এখনও পর্যন্ত কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ঘটনার পরপরই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পুরো এলাকা ঘেরাও করে তল্লাসী শুরু করে। এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত অভিযান চলছে।

ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের কেন্দ্রীয় সভাপতি শ্যামল কান্তি চাকমা মুঠোফোনে এ ঘটনার জন্য প্রসীতের ইউপিডিএফ-কে দায়ী করেছেন।

তবে প্রসীতের ইউপিডিএফ’র মুখপাত্র নিরণ চাকমা এ ঘটনাকে বিশেষ বাহিনীর নাটক দাবী করে বলেন, আমাদের সাংবাদিক সম্মেলনকে বানচাল করা জন্য এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *