পাহাড়ি-বাঙ্গালী বিভেদ সৃষ্টিতে কোন সুফল আসবে না


নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা:

পার্বত্য অঞ্চলে পাহাড়ি-বাঙ্গালীকে একে অপের সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে নেয়ার আহ্বান জানিয়ে মাটিরাঙ্গা জোন অধিনায়ক লে. কর্ণেল কাজী শামশের উদ্দিন পিএসসি-জি বলেছেন, তবেই এলাকায় শান্তি ফিরে আসবে। সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া দুটি অপহরনের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, এসব করে কাঙ্খিত সাফল্য আসবেনা। পাহাড়ি-বাঙ্গালী বিভেদ সৃষ্টি করে কোন সুফল আসবেনা।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মাটিরাঙ্গা জোন সদরে মাসিক আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বাল্যাছড়ির সাইনবোর্ড এলাকায় যাত্রীবাহি বাস থেকে গৃহবধু ফাতেমা বেগমকে অপহরনের দুই মাস পার হলেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে জানান  লে.কর্ণেল কাজী শামশের উদ্দিন পিএসসি, জি।

মাটিরাঙ্গায় হঠাৎ করে মরন ব্যাধি ইয়াবার ছোবল বেড়ে গেছে উল্লেখ করে তিনি মাদক প্রতিরোধে রাজনৈতিক নেতাসহ সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সকলকে দায়িত্বশীল ভুমিকা রাখতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ঘন্টাব্যাপী মতবিনিময় সভায়  মাটিরাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম তাজু, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো. শামসুল হক, মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ মো: জাকির হোসেন, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আবুল হাশেম ভুইঁয়া ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মাসিক নিরাপওা সম্মেলনে মাটিরাঙ্গা জোনের জোনাল স্টাফ অফিসার মেজর রাহাত আহমেদ, মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্হ্য ও প. প. কর্মকর্তা ডা. মো. খায়রুল আলম,  মাটিরাঙ্গা ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রশান্ত কুমার এিপুরা,  মাটিরাঙ্গা রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মোশারফ হোসেন, মাটিরাঙ্গা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. আশরাফ উদ্দিন খোন্দকার, মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম, মাটিরাঙ্গা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন জয়নাল, যুগ্ম-সম্পাদক সাগর চক্রবর্তী কমল, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিল মো. শহিদুল ইসলাম সোহাগসহ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, হেডম্যান-কার্বারী, শিক্ষক, ধর্মীয় নেতা ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *