পাহাড়কে অস্ত্রবাজ ও চাঁদাবাজদের অভয়ারণ্য হতে দেওয়া হবে না: বীর বাহাদুর


Lama MP Picture 03, 25.05

লামা প্রতিনিধি:

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর আস্থা রেখে শান্তি চুক্তির সময় শান্তি বাহিনী সকল অস্ত্র জমা দিয়েছে, সুতারাং তাদের কাছে অস্ত্র থাকার কথা নয়। যারা পার্বত্য চট্টগ্রামে অস্ত্র নিয়ে ঘোরাফিরা ও চাঁদাবাজি করে তারা আমাদের নিরাপত্তা এবং উন্নয়নের শত্রু। পার্বত্য চট্টগ্রামের অস্ত্রবাজ ও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

বৃহস্পতিবার  দুপুরে লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নের লুলাইং মুখ বাজারে ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠী ম্রো সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এ সব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন পার্বত্য অঞ্চলে নিরাপত্তা বাহিনী আমাদের জান মালের নিরাপত্তা দিতে অনেক কষ্ট করেন। মানুষের উন্নয়ন এবং আইন শৃঙ্খলা পরিবেশ স্বাভাবিক রাখার জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি জনগণ কে সচেতন হতে হবে।

গজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বাথোয়াই চিং মারমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ম্রো সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন, আলীকদম সেনাজোন কমান্ডার লে. ক. মাহাবুবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. ফারুক হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামান, আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য কাজল কান্তি দাশ, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য চিংইয়াং ম্রো, ও পার্বত্য চট্টগ্রামে বিদ্যুৎ উন্নয়ন প্রকল্প পরিচালক।

বক্তব্য রাখেন লামা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইসমাইল, গজালিয়া ইউনিয়নের মেম্বার নিপিউ ম্রো ও লামা উপজেলা ম্রো যুব ফোরামের সেক্রেটারি মেন পুং ম্রো।

মন্ত্রী সমাবেশে আরও বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নে  আওয়ামী লীগ সরকারই একমাত্র আন্তরিক। শান্তি চুক্তির পর হতে তিন পার্বত্য জেলায় উন্নয়নের জোয়ার বইছে।

পরে মন্ত্রী সরই বাজারে বিদ্যুৎ সরবরাহের ও উন্নয়ন বোর্ড এবং এলজিইডির বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন শেষে সরই ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *