পার্বত্য চট্টগ্রাম সীমান্তে বিজিবি ৪০টি নতুন ফাঁড়ি নির্মাণ করার পরিকল্পনা করছে


বিজিবি লোগো

পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

বিজিবি ভারতের ত্রিপুরা ও মিজোরাম সীমান্তে ৪০ টি নতুন ফাঁড়ি বিওপি নির্মাণ করার পরিকল্পনা করছে। জঙ্গী তৎপরতা ও পাচার রোধে এই ফাঁড়ি নির্মাণ করতে সম্মতি জানিয়েছে বর্ডার গার্ড অব বাংলাদেশ বিজিবি, এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিএসএফ। ত্রিপুরা সীমান্তবর্তী অঞ্চলের বিএসএফ মহাপরিদর্শক ভোলা নাথ শর্মা সোমবার এ কথা জানান।

 

তার ভাষায় উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এই রাজ্যগুলোতে যে সন্ত্রাসী ও অন্তর্ঘাতী তৎপরতা পরিচালিত হয় তার অধিকাংশই পার্বত্য চট্টগ্রাম সীমান্ত থেকে পরিচালিত হয়ে থাকে। এই স্থানসমূহ বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত বলে তিনি মন্তব্য করেন যেখানে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যেও জঙ্গীরা তাদের কার্যক্রম চালিয়ে থাকে।

এদিকে ত্রিপুরার তিন সীমান্ত জেলার তিন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও বাংলাদেশের চার সীমান্ত জেলার ৪ জেলা প্রশাসক আজ ২৪ জুন চট্টগ্রামে বৈঠকে মিলিত হবেন। কর্মকর্তারা সীমান্ত অপরাধ দমনের উপায় হিসেবে বেড়া নির্মাণ ও আরো ভালো সীমান্ত ব্যবস্থাপনা খাড়া করার বিষয়ে মতবিনিময় ও আলোচনা করে চূড়ান্ত কৌশল গ্রহণ করবেন।

গত ৮ জুন থেকে ১১ জুন পর্যন্ত মেঘালয়ের শিলংয়ে বিজিবি ও বিএসএফ এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যাতে সন্ত্রাসবাদ ও অন্তর্ঘাত নির্মূলের যৌথ কর্মকৌশল ও আরো নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। এ ছাড়া সীমান্ত সম্পর্কিত অন্যান্য সমস্যাও আলোচনায় স্থান পায়। নতুন ফাঁড়ি নির্মাণে পার্বত্য চট্টগ্রামের দুর্গম পথ ও অধিকাংশ স্থানে চলাচলের ব্যবস্থা না থাকায় বিজিবি ভারতের রাস্তা-ঘাট ব্যবহারের অনুমতি চাইলে বিএসএফ পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেয়।

এই বিএসএফ কর্মকর্তা আরো জানান, দেশ দু’িটর অভ্যন্তরীণ শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে আন্ত:সীমান্ত অপরাধ ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় সন্ত্রাসী গ্রুপসমূহের অপতৎপরতা বন্ধে উভয় দেশ একযোগে কাজ করে যাবারও আশাবাদ ব্যক্ত করে এই বৈঠকে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *