পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি কমিশন আইন সংশোধনী- ২০১৩ একটি সংবিধান রাষ্ট্র ও গণবিরোধী আইন- ওয়াদুদ ভুঁইয়া


পার্বত্য নিউজ রিপোর্ট:

গত ৩০ জুন ২০১৩ চট্রগ্রাম মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন সভা কক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি কমিশন আইন সংশোধনী ২০১৩ মন্ত্রিপরিষদ কর্তৃক অনুমোদনের প্রতিবাদে রাঙ্গামাটি সম-অধিকার আন্দোলন ও সম-অধিকার ছাত্র আন্দোলনের নেতৃবৃন্দের সাথে এক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও খাগড়াছড়ির সাবেক সাংসদ জনাব ওয়াদুদ ভূঁইয়া।

 প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি কমিশন আইন সংশোধনী ২০১৩ একটি সংবিধান ও রাস্ট্র সর্বপরি গনবিরোধী আইন। মন্ত্রীসভায় এই কালো আইন পাশের মাধ্যমে সরকার পার্বত্য এলাকার শান্তিকামী পাহাড়ী ও বাঙ্গালীদের মধ্যে একটি সংঘাতময় পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে। একই দেশে এই দ্বৈত ভূমি নীতির মাধ্যমে সরকার দেশের সার্বভৌমত্বকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে। সরকার পার্বত্য এলাকার কিছু সংগঠনকে খুশি করতে এবং পার্বত্য এলাকায় অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করে পাহাড়ী ও বাঙ্গালীর মধ্যে দাঙ্গা সৃষ্টি করে আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পার্বত্য এলাকার আসনগুলোর রায় তাদের পক্ষে নিয়ে যাওয়ার জন্য এই ষড়যন্ত্রের জাল তৈরি করছে।

এমতাবস্থায় পার্বত্য এলাকায় যে কোন অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি হলে এর দায়ভার সরকারকে নিতে হবে বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন তিনি। সর্বপরি এই রাস্ট্র ও গনবিরোধী পার্বত্য ভূমি কমিশন সংশোধনী আইন-২০১৩ জাতীয় সংসদে পাশ করা থেকে বিরত থেকে পার্বত্য এলাকায় পাহাড়ী বাঙ্গালীর মধ্যে সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন রাঙ্গামাটি সম-অধিকার আন্দোলনে সভাপতি পেয়ার আহম্মদ।  এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সম-অধিকার আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা জনাব আবু ইউসুফ, বেলায়েত হোসেন ও সম-অধিকার খাগড়াছড়ির নেতা মোস্তাফিজুর রহমান মিল্লাত, রাঙ্গামাটি জেলার যুবদল সভাপতি শাকিল ও রাঙ্গামাটি সম-অধিকার নেতা সাইফুল ইসলাম ছগির, তারা মিয়া ও ছাত্র নেতা আলামিনসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *