পানছড়ির জিয়ানগরে জরাজীর্ণ গৃহে পাঠদান


পানছড়ি, খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার উল্টাছড়ি ইউপির জিয়ানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জরাজীর্ণ একটি গৃহে চলে ৫ম শ্রেণীর পাঠদান।

শ্রেণীকক্ষের অভাবে এভাবেই নানাবিধ সমস্যার মাঝে দীর্ঘদিন যাবৎ পাঠদান চলছে বলে এলাকাবাসী জানান।

জানা যায়, সর্বমোট ৪ কক্ষ বিশিষ্ট বিদ্যালয়টি নির্মিত হয় ২০০৩ সালে।  বিগত বছরগুলোতে বিদ্যালয়ের পাশের হার শতভাগ। বর্তমানে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী সংখ্যা ২০৫জন।

শ্রেণি কক্ষে শিক্ষার্থী সংকুলান না হওয়ার কারণে ২০০৯ সালে জেলা পরিষদ হতে উপরে টিন ও চারিদিকে বেড়ার তৈরি একটি কক্ষ নির্মাণ করে দেয়া হয়। নির্মাণের পর থেকে অদ্যবধি কোন সংস্কারের কাজ করা হয়নি। ফলে হেলে পড়া ভাঙ্গা বেড়ার জরাজীর্ণ গৃহেই চলছে পাঠদান।

ভাঙ্গা বেড়ার ফাঁক দিয়ে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মরিয়ম, আসমা, ইব্রাহিম খলিল, হাসানুজ্জামান ও মান্নানসহ অনেকেই জানায়, বিদ্যালয়ে শ্রেণি কক্ষের অভাব রয়েছে। ভয় লাগলেও এই ভাঙ্গা ঘরে পড়তে আসি।

এলাকার মো. কামাল হোসেন, রমজান আলী জানায়, কিছু কিছু বিদ্যালয় রয়েছে শিক্ষার্থী সংখ্যা খুবই কম কিন্তু সেসব বিদ্যালয়গুলো দ্বিতল ভবন করা হয়েছে। অথচ জিয়ানগর, মুসলিমনগর, তালুকদারপাড়া, আলীনগর, শান্তিপুর, মোল্লাপাড়াসহ কিছু বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী বেশি কিন্তু ভবন অতি সাধারণ মানের ও পুরনো।

অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসব বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ অতীব জরুরী বলেও দাবি তাদের। এ ব্যাপারে পানছড়ি প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (অতি: দায়িত্বে) সুজিত মিত্র চাকমা জানায়, পর্যায়ক্রমে সবগুলো বিদ্যালয় নতুন ভাবে পাকা ভবন নির্মিত হবে। জিয়ানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মাণের বিষয়টি গুরুত্বের সহিত দেখবেন বলেও তিনি জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আবুল হাশেম বলেন, শিক্ষা অফিসারের সাথে কথা বলে ঘরটি মেরামতের ব্যাপারে জেলা পরিষদে খুব দ্রুত অবগত করা হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *