পানছড়িতে ভাতিজার হাত ধরে চাচী নিরুদ্দেশ


নিজস্ব প্রতিবেদক, পানছড়ি:

জেলার পানছড়িতে ভাতিজার হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছে চাচী। দু’সন্তানের জননী চাচীর বয়স ৩৩ বছর হলেও ভাতিজার বয়স ২২। উপজেলার ৩নং পানছড়ি ইউপির আইয়ুব নগর গ্রামের এ ঘটনা জানাজানি হলে চায়ের আসরে জমে উঠে মুখরোচক আলাপচারিতা।

জানা যায়, আইয়ুব নগর গ্রামের আবদুল বারেকের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন প্রায় এক যুগ ধরে চট্টগ্রাম আবুল খায়ের কোম্পানীতে চাকুরীরত। ছুটি পেলেই আদরের দুই ছেলে ও স্ত্রী আমেনার কাছে ছুটে আসে। স্ত্রী আমেনা মাটিরাঙ্গা উপজেলার বেলছড়ি ইউপির উত্তর পাড়া গ্রামের মৃত কালা মিয়া ও ফিরোজা বেগমের মেয়ে।

চাকুরীর সুবাদে স্বামী শাহাদাৎ চট্টগ্রামে থাকায় আমেনার গোপন সংখ্যতা গড়ে উঠে স্বামী শাহাদাতের আপন বড় ভাই দেলোয়ারের ছেলে ব্যাটারি চালিত টমটম চালক ইলিয়াছের সাথে।

গোপন সূত্রে জানা যায়, তাদের এই সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। অবশেষে বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে তাদের গোপন সম্পর্ককে বাস্তবে রূপ দিতে হাতে হাত ধরে বাচ্চা দুটি নিয়ে নিরুদ্দেশ হয় অজানা ঠিকানায়। এলাকাবাসীর দাবি এভাবে নিরুদ্দেশ হবে কেউ চিন্তাও করেনি।

বুধবার রাত ১২টার দিকে খাগড়াছড়িতে ব্যাটারি চালিত টমটম পাওয়া গেলেও অদ্যবধি তাদের কোন খোঁজ মেলেনি। মোবাইল সংযোগও বন্ধ রয়েছে। ইলিয়াছের বাবা কৃষক দেলোয়ার ছেলের এ ঘটনায় মর্মাহত বলে জানায়। তার ছোট ভাই ৭ম শ্রেণিতে পড়ুয়া সাইফুলও ভাইয়ের এই ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেন।

আমেনার স্বামী শাহাদাৎ জানায়, প্রায় ১৪ বছরের সাংসারিক জীবনে পরিবারে কোন কিছুর ঘাটতি ছিলনা। প্রতি মাসে ৫হাজার, ৬ হাজার করে টাকা পাঠাতাম। ঘরে রক্ষিত প্রায় ৭০/৮০ হাজার টাকা, জায়গা-জমির দলিল প্রত্রাদি, বন্ধকী রেশন কার্ড ও সাথে থাকা সব স্বর্ণলংকার নিয়ে সে ভাতিজার হাত ধরে পালিয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবে বলে সে জানায়।

এলাকার ইউপি সদস্য আমিরুল বশর জানায়, ঘটনাটি সত্য। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জেনেছি। কিভাবে এর একটি সুন্দর সমাধান করা যায় তা আমরা দেখছি।

নিউজটি পানছড়ি বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *