পর্যটন স্পট চিহ্নিত করার জন্য ‘ফুরমোন ট্রেকিং এক্সপিডিশন’


রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটিতে সম্ভাব্য পর্যটন খাতের প্রচার ও প্রসার এবং পার্বত্য অঞ্চলের সংস্কৃতি-প্রকৃতি সংরক্ষণ ও উন্নয়নের লক্ষ্যে ‘ফুরমোন পাহাড় ট্রেকিং এক্সপিডিশন’ এর আয়োজেন করা হয়েছে।

এই এক্সপিডিশনের মাধ্যমে পর্যটন স্পট চিহ্নিত করে বিভিন্ন শ্রেণী, পেশা ও বয়সের অভিযাত্রী, পর্যটক, ভ্রমণকারীদের সাথে স্থানীয় বাসিন্দাদের সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যের বন্ধন দৃঢ় হয়ে সম্ভাবনাময় গন্তব্য হিসেবে ফুরমোন পাহাড় পরিচিতি লাভ করবে।

বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) সকালে রাঙ্গামাটি পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশন ও বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ক্লাবের উদ্যোগে ও রাঙ্গামাটি জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহযোগিতায় সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এসব কথা বলেন।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, ভাইস চেয়ারম্যান অরুণ কান্তি ঘোষ, সদস্য প্রকল্প বাস্তবায়ন ড. প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, রাঙ্গামাটি রিজিয়নের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল রেদুয়ানুল ইসলাম, বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনের পরিচালক মশিউর খন্দাকার, রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, ৩০ নভেম্বর রাঙ্গামাটি শহরের সাপছড়ি এলাকা থেকে এই ফুরমোন ট্রেকিং এক্সপিডিশন শুরু হবে। এতে তিন পার্বত্য জেলা থেকে মোট ২১ জন এবং বাংলাদেশের অন্যান্য জেলা হতে ১২ জন সহ সর্বমোট ৩৩ জন সদস্য অংশগ্রহণ করবে। এদের মধ্যে দুইজন মহিলাও অংশগ্রহণ করবে বলে জানান বক্তারা।

উল্লেখ্য, রাঙ্গামাটি জেলা থেকে কুতুবছড়ি যাওয়ার পথে রাস্তার পাশে ফুরমোন পাহাড় অবস্থিত। এ পাহাড় চূড়া থেকে রাঙ্গামাটি শহরটি সম্পূর্ণভাবে অবলোকন করা যায়। এমনকি মেঘ না থাকলে ফুরমোন চূড়া থেকে চট্টগ্রাম শহরও দৃষ্টিগোচর হয়। পাহাড় চূড়ায় আছে একটি ভাবনা কেন্দ্র এবং সেনাবাহিনীর একটি ক্যাম্প।

কোলাহলপূর্ণ জন-অরণ্য থেকে দূরে প্রকৃতির কোলে অনন্য সুন্দর স্থানটির সৌন্দর্য ও আকর্ষণ করার জন্য ফুরমোন পাহাড় ট্রেকিং এ এক্সপিডিশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *