নো-ম্যানস ল্যান্ডে রোহিঙ্গাদের ভীড় নেই


নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান:

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে নো-ম্যানস ল্যান্ডে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের ভীড় নেই। সীমান্তে কয়েকটি পয়েন্ট দিয়ে গুটি কয়েক রোহিঙ্গাকে আসতে দেখা গেলেও গত সপ্তাহের মতো স্রোত চোখে পড়েনি স্থানীয়দের। এক সপ্তাহ আগেও নো-ম্যানস ল্যান্ডে হাজার হাজার রোহিঙ্গা অবস্থান নিয়েছিল। সোমবার সকাল থেকে নাইক্ষংছড়ি সীমান্তের ঘুমধুম, তুমব্রুু, জলপাইতলী, আঁশবাগান, রেজু আমতলীসহ বেশ কয়েকটি সীমান্ত এলাকার এ তথ্য পাওয়া গেছে।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম এলাকার বাসিন্দা আব্দুল হক জানান, মিয়ানমারে নিরাপত্তা বাহিনী রোহিঙ্গা অধ্যুাষিত বিভিন্ন পাড়াগুলোতে বাড়িঘর আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে। এরপর থেকে হাজার হাজার রোহিঙ্গা তুমব্রু ও জলপাইতলী সীমান্তে অবস্থান নিয়েছিল। হয়তো রাখাইন রাজ্যে আর কোনও রোহিঙ্গা না থাকায় এখন আসা বন্ধ হয়ে গেছে। গত চারদিন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ঢল সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আসতে দেখিনি।

তুমব্রু বসবাসকারী নুরুল আলম বলেন, নো-ম্যানস ল্যান্ডে অবস্থান নেওয়া রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্যাম্পের দিকে চলে গেছে। তবে কিছু কিছু রোহিঙ্গা রাতে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করলেও সোজা ক্যাম্পেই চলে যাচ্ছে বিনা বাধায়। এমনকি বিজিবি’র সদস্যদেরও তেমন বাধা দিতে দেখা যাচ্ছে না।
অনুপ্রবেশকারী একাধিক রোহিঙ্গা জানান, রাখাইন রাজ্যে মনে হয় কোন রোহিঙ্গা নেই। সব বাড়ি খালি পড়ে রয়েছে। অধিকাংশ আগুনে পুড়ে গেছে।

প্রঙ্গত, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে পুলিশ পোস্টে হামলার অভিযোগে সাধারণ মানুষের ওপর হত্যা, ধর্ষণ, বাড়িঘরে আগুনসহ নানা নির্যাতন অব্যাহত রেখেছে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী। এতে লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। এর আগে গত বছরের ৯ অক্টোবরের পর থেকে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে একইভাবে হামলার ঘটনা ঘটে। ওই সময় প্রাণ ভয়ে পালিয়ে আসে প্রায় ৮৭ হাজার রোহিঙ্গা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *