নানিয়ারচর উপ-নির্বাচনে নিরাপত্তা বলয়


নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি:

নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যেই রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় বুধবার (২৫ জুলাই) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উপ-নির্বাচন।

র‌্যাব-বিজিবি, আনসার, পুলিশ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে একটি অবাধ-সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্পন্ন করা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটি জেলা প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা ও নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার আব্দুল লতিফ শেখ।

ঘটনাবহুল নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ২২ জুলাই থেকেই উপজেলাজুড়ে বিচরণ করছে এলিট ফোর্স র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব এর ৬টি বিশেষ টহল টিম।

রাঙামাটির পুলিশ সুপার আলমগীর কবির জানিয়েছেন, নানিয়ারচর উপজেলার আসন্ন উপনির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ নিরপেক্ষ করতে প্রতিটি কেন্দ্রের ভেতরে ১৫ জন এবং বাইরে ৫ জন করে পুলিশ সদস্য দায়িত্বে থাকবে।

উপজেলার নদীপথে এবং সড়কপথে ৮টি মোবাইল টিম সার্বক্ষণিক টহলে থাকার পাশাপাশি নারী পুলিশের একটি বিশেষ টিমসহ রিজার্ভ স্টাইকিং ফোর্স মজুদ রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে পুলিশের একটি অংশকে সাদা পোশাকে নিয়োজিত রাখা হয়েছে বলে এসপি জানান।

রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ জানিয়েছেন, নানিয়ারচরের উপ-নির্বাচনে যে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের সুবিধার্থে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে একজন করে সর্বমোট ১৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে নিয়োগ করা হয়েছে।

ভোট কেন্দ্রে নির্বিঘ্নে ভোট প্রদানের লক্ষ্যে কেন্দ্রকে সন্ত্রাসমুক্ত রাখতে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ১৪টি ভোট কেন্দ্রের ভেতরে ও বাইরে প্রতিটি কেন্দ্রে যৌথ নিরাপত্তা বাহিনীর অন্তত ৫০ জন সদস্যকে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত রাখা হবে।

গত ৩ মে নিজ কার্যালয়ের সামনে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা। এতে পদটি শূন্য হওয়ায় উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। নির্বাচন পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন নারী ভাইস চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *