নানিয়ারচরে অনাদি ও অনল বিকাশ চাকমার হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন


রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

জেলার নানিয়াচর উপজেলা সাবেক ইউপি সদস্য অনাদি রঞ্জন চাকমা ও সদর উপজেলা বন্দুকভাঙ্গার ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ) এর সংগঠক অনল বিকাশ চাকমা প্লুটোর হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে নিহতদের পরিবার।

মঙ্গলবার(৯জানুয়ারি) সকালে রাঙ্গামাটি নানিয়ারচর উপজেলার কুতুকছড়ি ইউনিয়ন সম্মেলন কক্ষে এ সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, নিহত অনাদি রঞ্জন চাকমার ছেলে রিন্টু চাকমা, স্ত্রী রমনাদেবী চাকমা, বড় ভাই রাজ্জু চাকমা এবং অনল বিকাশ চাকমার স্ত্রী আলপনা চাকমাসহ নিহত দুই পরিবারের ছেলে-মেয়েরা।

সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করা হয়েছে, গত ৫ ডিসেম্বর সাবেক ইউপি সদস্য অনাদি রঞ্জন চাকমাকে তৈচাকমা দজর পাড়া এলাকায় গুলি করে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার ১০ দিন পর বন্দুকভাঙ্গার ধামাইছড়া মৌনপাড়া এলাকায় ইউপিডিএফ’র সংগঠক অনল বিকাশ চাকমা প্লুটোকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এই দু’টি হত্যাকাণ্ডের জন্য ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক)’র নেতা তপন জ্যোতি চাকমা ওরফে বর্মা ও তরু চাকমাকে দায়ী করেছেন নিহতদের পরিবার-পরিজনরা।

সাংবাদিক সম্মেলনে অনাদি রঞ্জন চাকমার বড় ভাই রাজ্জু চাকমা অভিযোগ করে বলেন, আমরা অতি সাধারণ ও নিরীহ মানুষ। অনাদি রঞ্জন চাকমা ও অনল বিকাশ চাকমা খুন হওয়ার পর আমরা এখন অসহায় হয়ে পড়েছি। আমাদের চোখে এখন ভীষণ অন্ধকার। ছেলে-মেয়ে নিয়ে কিভাবে সংসারের খরচ সংস্থান হবে আমাদের দুশ্চিন্তার শেষ নেই। সন্ত্রাসীরা কেবল ওই দুইজনকে খুন করেনি, আমাদের জীবনও শেষ করেছে। তাই এই দুইজনের হত্যাকারীসহ খাগড়াছড়ি ইউপিডিএফ এর সংগঠক মিঠুন চাকমা হত্যার তীব্র নিন্দা এবং হত্যাকারীদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানান তিনি।

নিহত অনল বিকাশ চাকমার স্ত্রী আলপনা চাকমা সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ করে বলেন, আমরা এখন খুবই অসহায় হয়ে পড়েছি। আমার ছোট দুই ছেলে-মেয়ে নিয়ে অভাবে মানবেতর জীবন যাপন করছি। কোন রকম ধান চাষ এবং বিভিন্ন ক্ষেত করে সংসারের খরচ বহন করি। তিনি আরো বলেন, আমার স্বামীকে যারা হত্যা করেছে। আমি হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই। ভবিষ্যতে যাতে আর কাউকে অনাদি, প্লুটো ও মিঠুনের মতো অকালে প্রাণ হারাতে না হয় এবং আর কোন পরিবারকে আমাদের মতো ভাগ্য বরণ করতে না হয়, তার জন্য সরকারকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *