নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নে ভার্মি কম্পোস্ট সার উৎপাদন বিষয়ক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত


বাইশারী প্রতিনিধি:

কেঁচোর সাহায্যে কিভাবে ভার্মি কম্পোস্ট সার তৈরি করা যায় (জৈব সার) এই নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি সদরে মাঠ দিবস পালিত হয়েছে।

বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টায় নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের বিছামারা এলাকার মধ্যম চাক পাড়া গ্রামে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর আয়োজনে  ভার্মি কম্পোস্ট সার উৎপাদন প্রদর্শনী ও মাঠ দিবসে এলাকার অর্ধ শতাধিক কৃষক-কৃষাণীরা নতুন প্রযুক্তিতে তৈরি ভার্মি কম্পোস্ট সার প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করে।

আর এদিকে মাঠ দিবস অনুষ্ঠানে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা টিটন কুমার দে’র পরিচালনায় শেখ মনিরুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে আলোচনা করেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. কামাল উদ্দীন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিছামারা ব্লকের দায়িত্বরত উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মং চিং থোয়াই চাক,  বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যউচিং চাক, উপজেলা মৎস কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম, আওয়ামী লীগের সদস্য সচিব মো. ইমরান মেম্বার নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি শামীম ইকবাল চৌধুরী, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শিমুল রঞ্জন শীল, আব্দু রহমান,শিমুল কান্তি বড়ুয়া, সেলিনা আক্তার কাজল, মোতাহেরা বেগম তুহিন, রফিকুল আলম, নজরুল ইসলাম, সুলাল বড়ুয়া, মৌজার কারবারী ফোছা অং চাক, অংথোয়াই চিং চাক, বিছামারা ব্লকের সিআইজি (পুরুষ) সদস্য মংজাইহ্লা চাক, সিআইজি (মহিলা) সদস্য মাসুই চিং চাক, কৃষক ছানু অং চাক,   প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত মাত্রায় রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহারের কুফল এবং কম্পোস্ট সার ব্যবহারের সুফল বিষয়ে ফসলের জন্য ভার্মি কম্পোস্ট সারের (কেচো কম্পোষ্ট) গুরুত্বের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন আলোচকরা। পরে কৃষাণীদের মাঝে বিনামূল্যে কম্পোস্ট সার উৎপাদনের জন্য বীজ (কেচো) বিতরণ করা হয়।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *