নাইক্ষ্যংছড়ির পাহাড়ে প্রচন্ড শীতে জনজীবন বিপন্ন


IMG_1444 copy

নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি:

পার্বত্য বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় পাহাড়ী বাঙ্গালী জনগোষ্ঠীদের প্রচন্ড শীতে জনজীবন বিপন্ন হয়ে উঠেছে। সরকারি-বেসরকারি তেমন কোন সাহায্য না পাওয়ায় চরম কষ্টে দিন কাটছে এসব মানুষের।

সরজমিনে দেখা যায়, শীতের তীব্রতা, ঘনকুয়াশা এবং ঠান্ডা বাতাসে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে বৃদ্ধা ও শিশুদের মধ্যে অনেকে এখন অনেকে হাসপাতালে। এছাড়া পাহাড়ে বসবাসরত মানুষ শীতবস্ত্রের অভাবে আগুন জ্বালিয়ে রাত ভর শীতের সাথে যুদ্ধ করে চলছে।

বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুল হক বলেন, তার ইউনিয়নের ২০ হাজার মানুষের জন্য শীতের কম্বল পেয়েছেন মাত্র ৮৮ টি।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কামাল উদ্দীন বলেন, পুরো উপজেলার জন্য সরকারি ভাবে প্রথম দফায় ৫শত কম্বল এবং দ্বিতীয় দফায় ৯শত কম্বল পেয়েছেন তিনি। এই শীতে অসহায় মানুষের সাহায্যে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে পাহাড়ী বাঙ্গালী মিলে লক্ষাধিক জনসাধারণ বসবাস করছেন। এ পর্যন্ত উপজেলা কোন এনজিও সংস্থা ও দাতা সংস্থার শীতবস্ত্র বিতরণ করেননি বলে জানা গেছে। তবে গত রবিবার নাইক্ষ্যংছড়িস্থ ৩১ বিজিবির পক্ষ থেকে কয়েকশত মানুষের মাঝে শীতের কম্বল বিতরণ করা হয়েছে বলে বিজিবি সুত্রে জানা যায়।

শীতের তীব্রতায় গত ১সপ্তাহ যাবৎ শুধু পাহাড়ের মানুষ নয় পশু পাখিদেরও নাজুক অবস্থা। হাঁস, মুরগী, গরু, ছাগল এবং বনের পাখিও মারা যাচ্ছে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *