নাইক্ষ্যংছড়ির গহীন পাহাড়ে যুবকের লাশ উদ্ধার


নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি:

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির গহীন পাহাড়ে মাটি খুঁড়ে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (২ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড ক্যাজাইহ্লা মার্মার ঘোনা নামক স্থানে দুই পাহাড়ের মাঝখানে মাটি খুঁড়ে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকৃত লাশ বাইশারী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড করলিয়ামুরা গ্রামের বাসিন্দা মো. হোছনের পুত্র আব্দুল হাকিম (২৮)-এর।

উদ্ধার হওয়া লাশের পিতা মো. হোছন জানান, গত ২৩ জুন সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এক ব্যক্তি আমার ছেলেকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার কোন ধরনের খোঁজ খবর না পেয়ে গত ১ জুলাই বিষয়টি নিকটবর্তী বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে লিখিত ভাবে জানাই।

এর পরপরই পুলিশ গহীন পাহাড়ের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে সন্ধান চালায়। কিন্তু পুলিশ যুবকের কোন ধরনের সন্ধান পায়নি। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে স্থানীয় শত শত লোকজন গহীন পাহাড়ে সোমবার সকাল থেকে তল্লাশী শুরু করে। ওই সময় লোকজন দুই পাহাড়ের মাঝখানে সমতল জায়গায় নতুন মাটির গর্তের সন্ধান পায়।

ঘটনাটি সাথে সাথে ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ইউপি সদস্যকে এলাকাবাসী ও পরিবারের সদস্যরা জানালে চেয়ারম্যান ঘটনাটি বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ একেএম হাবিবুল ইসলাম ও সহকারী ইনচার্জ মো. আবু মুসাকে অবহিত করেন।

খবর পেয়ে বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং ঘটনাস্থল থেকে নতুন মাটি দেখার পর সন্দেহ হলে গর্ত খুঁড়ে এক ব্যক্তির লাশ দেখতে পায়। ওই সময় পরিবারের সদস্যরা লাশ দেখে আব্দুল হাকিম বলে সনাক্ত করে।

এছাড়া গর্ত থেকে লাশের সাথে একটি ছোট ছুরি, ছাতা, মোবাইলের ব্যাটারী ও গামছা উদ্ধার করা হয়।

বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (পরিদর্শক) একেএম হাবিবুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে তিনি সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীদের সাথে নিয়ে মাটি খুঁড়ে গর্ত থেকে লাশটি উদ্ধার করেন এবং লাশটি ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এদিকে নিহত আব্দুল হাকিমের মা আমেনা খাতুন তার ছেলের খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক ন্যায় বিচার পাওয়ার আশা ব্যক্ত করেন।

মাটি খুঁড়ে আব্দুল হাকিমের লাশ উদ্ধারের পর পরিবারের সদস্যদের কান্নায় আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠছে। লাশটি দেখতে গহীন পাহাড়ে ইউনিয়নের শত শত লোকজন ভীড় জমায়। পরিবারের সদস্যদের মাঝে চলছে শোকের মাতম।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে আটক এবং মামলা হয়নি। তবে পরিবারের সদস্যদের দাবি, তারা অবশ্যই নিহতের খুনিদের বিচারের জন্য মামলা দায়ের করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *