নাইক্ষ্যংছড়িতে উচ্ছ্বাসহীনতায় ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী


বাইশারী প্রতিনিধি:

নাইক্ষ্যংছড়িতে এক সময় জমজমাট উচ্ছ্বাসে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হলেও আওয়ামী লীগ সরকারের চাপের মুখে নেতাকর্মীদের মাঝে কোন উচ্ছ্বাস নেই। এর পরও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের আন্দোলন, সংগ্রাম গৌরবের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনেকটা চুপিসারে কেক কাটার মধ্যদিয়ে পালিত হয়েছে।

সোমবার(১ জানুয়ারি) দুপুর ২টায় পুরাতন বাস স্টেশন সংলগ্ন কাঠের ডিপোর ঝুপড়িতে সদর ইউনিয়ন ছাত্রদলের আয়োজিত প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক মো. হোছনের সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন সদর ইউনিয়নের ছাত্রদলের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম।  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বান্দরবান জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য মো: আরিফ উদ্দীন কোম্পানী। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আবু কায়সার।

অনুষ্ঠানে  বক্তারা বলেন, ১৯৭৯ সালের এই দিনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ছাত্র রাজনীতির গুণগত পরিবর্তন ও যুগোপযোগী করার লক্ষ্যে শিক্ষা, ঐক্য ও প্রগতি এই তিন মূলনীতিকে ধারণ করে উৎপাদনমুখী শিক্ষাব্যবস্থা প্রবর্তনের জন্য প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল।

দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। শহীদ জিয়ার নিজ হাতে গড়া এই ছাত্র সংগঠনটি সূচনালগ্ন থেকে বিভিন্ন জাতীয় পর্যায়ে ও স্বৈরাচারী আন্দোলনে সঠিক ভাবে নেতৃত্ব দিয়ে সুনাম অর্জন ও রাজনৈতিক দূরদর্শিতার প্রমাণ দিয়েছে। মহান স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ জিয়ার আদর্শে চলা জনপ্রিয় এই ছাত্রসংগঠনটির সঙ্গে দেশের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে থাকা লক্ষ-কোটি কিশোর-তরুণ জড়িত, যারা বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ জিয়ার আদর্শ বুকে ধারণ করে।

বর্তমানে যারা বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত আছেন, তাদের অনেকেই জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ১৯৭৯ সালে জিয়াউর রহমান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) প্রতিষ্ঠা করার সময় ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের জন্য একটি ছাত্র সংগঠনও প্রতিষ্ঠা করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেন। পরে ১৯৭৯ সালের ১লা জানুয়ারি কেন্দ্রীয়ভাবে এই সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন। তখনকার সময়ের জিয়াউর রহমানের জনপ্রিয়তায় অনুপ্রাণিত হয়ে অনেক তরুণ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলে যোগদান করেন।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল শুরু থেকে আজ অবদি দলীয় সকল কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণসহ সফলতার সঙ্গে দেশের জাতীয়তাবাদ প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। এছাড়াও দলের সুসময় ও দুঃসময়ে পাশে থেকে দলের প্রতি সংগঠনের দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে সচেষ্টতার প্রমাণ দিতে সক্ষম হয়েছে। আগামী দিনেও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্রতিটি নেতা ও কর্মী দলের প্রতি পূর্ণ আস্থা রেখে দলকে আরও শক্তিশালী করতে এক হয়ে কাজ করবে এমনটাই প্রত্যাশা বক্তাদের।

আর এদিকে অনুষ্ঠানের উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবু সুফিয়ান সোহেল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ও বক্তব্য রাখেন, উপজেলা বিএনপির সদস্য আরেফ উল্লাহ ছোট্ট, শ্রমিকদল সভাপতি আব্দুল গফুর কোম্পানী, স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি আব্দুল আলীম বাহাদুর, সহ সভাপতি ডা. ফরিদুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মো. ইউনুছ, উপজেলা ছাত্রদল সিনিয়র সহ-সভাপতি নুরুল আবছার সোহেল, যুগ্ম সম্পাদক মো. জিয়াউল হক,সদর ইউনিয়ন ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান, দৌছড়ি ইউনিয়ন  বিএনপি যুগ্ম সম্পাদক মো. আয়াছ, কলেজ ছাত্রদল নেতা মিজান, সেজান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *