ভারত রোহিঙ্গাদের দ্রুত এবং টেকসই প্রত্যাবাসন চায়: হর্ষ বর্ধন


বিশেষ প্রতিনিধ, কক্সবাজার:

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে প্রতিটি পর্যায়ে ভারত বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু হিসাবে পাশে ছিল এবং আগামীতেও থাকবে উল্লেখ করে ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ মানবিকতার পরিচয় দিয়েছে। ভারত রোহিঙ্গাদের দ্রুত এবং টেকসই প্রত্যাবাসন চায়।

ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা শুক্রবার সকাল ১০টায় কক্সবাজার পূজা উদযাপন পরিষদের আয়োজনে মত বিনিময় সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ভারতীয় হাই কমিশনার শুক্রবার সকালে বিমান যোগে কক্সবাজার পৌঁছে পর্যটন রেস্টুরেন্ট লাইভ ফিসে স্থানীয় পুজা কমিটির নেতাদের সাথে এক মত বিনিময় সভায় মিলিত হন।

তিনি বলেন, কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া বিপুল সংখ্যাক রোহিঙ্গার কারণে এলাকার সমস্যার কথা আমরা জানি। একই সাথে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা হিন্দু রোহিঙ্গা পরিবার গুলোসহ বিপুল সংখ্যাক রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ সরকার মানবিকতার পরিচয় দিয়েছে।

ভারত সরকারের উচ্চ পর্যায়ে প্রতিনিধি দল বেশ কয়েক বার মিয়ানমার সফর করে হিন্দু রোহিঙ্গাসহ সবাইকে দ্রুত ফেরত নেয়ার দাবি জানিয়েছে।

কক্সবাজারে পর্যটনের বেশ সম্ভবনার কথা উল্লেখ করে ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, ভারত থেকেও পর্যটকরা কক্সবাজারে বেড়াতে আসছেন। সম্প্রতি ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী ভারত থেকে ক্রুজ বা জাহাজ সরাসরি কক্সবাজারে আসবে এবং এখান থেকেও ভারত যাবে।

কক্সবাজার জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এড, রনজিত দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন মহেশখালী কুতুবদিয়া আসনে সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজারের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. মাহিদুর রহমান,পুলিশ সুপার মো.মাসুদ হোসেন, ভারতীয় হাই কমিশনের ফাস্ট সেক্রেটারি রাজেস উইংরি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *