দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন চিত্র তৃণমূলে তুলে ধরার আহ্বানের মধ্য দিয়ে মানিকছড়িতে মেলা সম্পন্ন

112-copy

মানিকছড়ি প্রতিনিধি:

দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের চিত্র গ্রামে-গঞ্জে তুলে ধরতে জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসার আহ্বানের মধ্য দিয়ে মানিকছড়িতে শেষ হলো ৩ দিনব্যাপী আয়োজিত উন্নয়ন মেলা-২০১৭।

উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৯-১১জানুয়ারী ৩দিনব্যাপী মানিকছড়িতে ব্যাপক আয়োজনে অনুষ্ঠিত উন্নয়ন মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান ম্রাগ্য মারমা বলেন, শেখ হাসিনা’র সরকার দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত  যে হারে উন্নয়ন করছে তা গ্রামে-গঞ্জের সহজ-সরল মানুষ জানে না। অথচ দেশের প্রতিটি নাগরিকের অধিকার তথ্য জানার। স্বাধীনতার ৪৬ বছরে এসে আওয়ামী লীগ সরকার দেশকে বিশ্ব দরবারে মধ্যম আয়ের দেশ হিসাবে উপস্থাপন করতে ভিশন-২০২১ ঘোষণা করেছে। আর সে অনুযায়ী প্রতিটি নাগরিকের অধিকার নিশ্চিত করতে উন্নয়ন করছে সরকার। দেশের প্রতিটি উপজেলায় ‘উন্নয়ন মেলা’র মাধ্যমে উন্নয়নের এসব খণ্ডচিত্র তুলে ধরার মধ্য দিয়ে জনগণকে তা অবহিত করার জন্য এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। ফলে সরকারের উন্নয়নসমূহ জনগণকে জানাতে এগিয়ে আসতে হবে জনপ্রতিনিধিদের।

সমাপনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিনিতা রানী। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি রাহেলা আক্তার, সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুল ইসলাম ফারুক, যোগ্যাছোলা ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীন, বাটনাতলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. শহীদুল ইসলাম মোহন, রাণী নিহার দেবী সরকারী উচ্চ বিদ্যাললয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মোফাজ্জল হোসেনসহ উপজেলা পর্যায়ের সকল দপ্তর প্রধানগণ।

সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিনিতা রানী বলেন, সরকারের উন্নয়ন চিত্র ও আগামী দিনের ভাবনা জনগণকে অবহিত করার লক্ষেই মেলার মূল ভিশন। তাই প্রতিটি দপ্তর নিজ নিজ স্টলে তৃণমূলে উন্নয়ন সর্ম্পকিত খণ্ড চিত্র তুলে ধরেছেন। এছাড়া সমন্বিত নারী উন্নয়ন সংস্থা ও উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামের পাশাপাশি বেসরকারী সংস্থার অংশগ্রহণে মেলার সৌন্দর্য ফুটে উঠেছে। এ জন্য অংশ গ্রহণকারী সবাইকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিনন্দন।

সভাপতির বক্তব্য শেষে ৩দিনে মেলায় অনুষ্ঠিত কুইস , চিত্রাঙ্কন, বিতর্ক, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং মেলায় অংশ গ্রহণকারী স্টলগুলোর মধ্যে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও সার্টিফিকেট এবং ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য ৯জানুয়ারী  বর্ণাঢ্য র‌্যালি শেষে ফিতা কাটার মধ্য দিয়ে উপজেলা টাউন হল চত্বরে এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন উপজেলার চেয়ারম্যান ম্রাগ্য মারমা ও ইউএনও বিনিতা।