দেশিয় লাগসই প্রযুক্তির ব্যবহার দেশপ্রেমে উজ্জীবিত করবে মানুষের মনকে- জেলা প্রশাসক


Capture

নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি:

বান্দরবান জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক বলেছেন প্রযুক্তিতে আমাদের দেশ এগিয়ে চলছে। বর্তমান পৃথিবীতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ছাড়া সামনে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। বর্তমান সরকার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উন্নয়নে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে। আমাদের দেশের বিজ্ঞানীরা প্রতিনিয়ত কৃষি, শিক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয়ে নতুন নতুন অনেক কিছু আবিষ্কার করছেন। দেশিয় লাগসই প্রযুক্তির ব্যবহার দেশপ্রেমে উজ্জীবিত করবে মানুষের মনকে। নয়নাভিরাম নাইক্ষ্যংছড়ির রাবার ও চা শিল্প আগামীতে জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখবে জানিয়ে কৃষকদেও তামাক উৎপাদনে নিরুৎসাহিত করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

রোববার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ হল রুমে ‘দেশে উদ্ভাবিত লাগসই প্রযুক্তি’ সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য জেলা প্রশাসক এসব কথা বলেন।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএসএম শাহে দুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে দেশিয় ঔষুধী গাছপালা, বায়োগ্যাস, শিশু খাদ্য, উন্নত চুলায় জ্বালানি ব্যবহার, স্পিরোলিনা, সৌর ড্রায়ার ও খাদ্য সংরক্ষ প্রযুক্তি উপস্থাপন করা হয়।

সেমিনারে সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এএসএম শাহে দুল ইসলাম নবাগত জেলা প্রশাসকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন ‘দেশে উদ্ভাবিত লাগসই প্রযুক্তি’ সেমিনারে বিজ্ঞানীরা যে প্রযুক্তি উপস্থাপন করেছেন তা এলাকার সাধারণ জনগণের ব্যবহার যোগ্য প্রযুক্তি। তাই এ প্রযুক্তি ব্যবহার করে দেশের উন্নয়নে সকলকে অবদান রাখার আহ্বান জানান তিনি।

সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ক্যউচিং চাক, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. কামাল উদ্দিন, থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুল খায়ের, হাজী এম এ কালাম ডিগ্রী কলেজ অধ্যাক্ষ ও. আ. রফিকুল ইসলাম।

এছাড়াও সেমিনারে বক্তব্য রাখেন, বিজ্ঞান ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের গবেষক ড. সেলিম খাঁন, মো. মশিউর রহমান, মাকসুদুর রহমান, চম্পক কুমার রায়, অজয় কান্তি মন্ডল, উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু আহমদ, বিশিষ্ট শিল্পপতি নুরুল আলম কোম্পানী, উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য সচিব মো. ইমরান।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উপজেলা বিআরডিবির জুনিয়র কর্মকর্তা মো. শাহ আলম।

উপজেলা প্রশাসন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে দেশে উদ্ভাবিত লাগসই প্রযুক্তি সম্পর্কে শিক্ষা ও সচেতনা সৃষ্টির লক্ষ্যে উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রদর্শণের জন্য ঢাকার ৪টিসহ স্থানীয় মোট ১৮টি স্টল অংশ নেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *