দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় জাহাজ চলাচল বন্ধ ৩ দিন: সেন্টমার্টিনে আটকা ৩০০ পর্যটক


images

টেকনাফ প্রতিনিদধি:

সাগর এখনো প্রচণ্ড উত্তাল থাকায় সেন্টমার্টিনে বেড়াতে গিয়ে আটকাপড়া ৩০০পর্যটক বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত ফিরতে পারেনি। গত মঙ্গলবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত কক্সবাজারের টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে তিনদিন ধরে পর্যটকবাহী জাহাজ ও ট্রলার চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

কক্সবাজার আবহাওয়া কার্যালয়ের সহকারী আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমুল হক বলেন, সঞ্চালনশীল মেঘমালার কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর, উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্রবন্দরের ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে। তাই কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরসহ উপকূলীয় এলাকায় ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রাখা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ডের পেটি কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম বিকেলে মুঠোফোনে বলেন, সাগর প্রচণ্ড উত্তাল থাকায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত কোন ধরনের নৌ-যান টেকনাফের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যেতে দেওয়া হয়নি। ফলে দ্বীপে বেড়াতে আসা পযর্টকরা আটকা পড়েছেন। কিন্তু তারা সকলেই সুস্থ ও ভালো আছেন বলে আমরা খোঁজ নিয়ে জেনেছি।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, গত সোমবার সকালে টেকনাফ থেকে তিনটি জাহাজে করে দেড় হাজারের মতো পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণে আসেন। ওই দিন বিকেলে ১ হাজার ১০০ পর্যটক সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফ ফিরে গেলেও ৩২৪ জন দ্বীপের বিভিন্ন হোটেলে রাত্রি যাপন করতে থেকে যান। বৈরী আবহাওয়ার কারণে সাগর উত্তাল হওয়ায় জাহাজ চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে সেন্টমার্টিনে অবস্থান করা পর্যটকেরা টেকনাফে আজও ফিরতে পারেননি। তবে পর্যটকদের সমস্যার কথা চিন্তা করে হোটেল ব্লু-মেরিন, শেনচুর, সমুদ্র কুঠিরে থাকার ব্যবস্থা ফ্রি করা হয়েছে। তাছাড়া রেস্তোরাঁয় খাওয়ার বিল ৫০ ভাগ করে দেয়। অন্যান্য আবাসিক হোটেল, কটেজ ও রেস্তোরাঁগুলোতেও ৫০ ভাগ করা হয়েছে। তবে যদি কোন পর্যটকের সমস্যা সৃষ্টি হয় তাহলে ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সমাধান করা হবে বলে জানিয়েছেন।

কেয়ারী সিন্দাবাদ ও কেয়ারী ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন জাহাজের টেকনাফের ব্যবস্থাপক মো. শাহ আলম বলেন, ‘সাগর ও নাফ নদী প্রচন্ড উত্তাল থাকায় বৃহস্পতিবারও কোনো জাহাজ টেকনাফ থেকে সেন্ট মার্টিন যেতে পারেনি। শুক্রবার সংকেত কেটে গেলে এবং সাগর শান্ত হলে টেকনাফ থেকে জাহাজ গিয়ে সেন্ট মার্টিনে আটকেপড়া পর্যটকদের নিয়ে আসা হবে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. শফিউল আলম বলেন, হঠাৎ করে আবহাওয়া কার্যালয় থেকে ৩ নম্বর সংকেত দেওয়ায় মঙ্গলবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত তিনদিন ধরে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ ও ট্রলার চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, পুলিশ ও ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে আটকেপড়া পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আবহাওয়ার উন্নতি ও সংকেত কেটে গেলে আটকেপড়া পর্যটকদের ফেরত আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *