দীঘিনালায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার প্রতিবাদে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের বিক্ষোভ



প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
খাগড়াছড়ি দীঘিনালায় ৫ম শ্রেণী পড়ুয়া এক ত্রিপুরা স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের পর হত্যার প্রতিবাদে এবং হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়ি শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে হিল উইমেন্স ফেডারেশন খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। রবিবার (২৯ জুলাই) বেলা ৩টায় মিছিলটি খাগড়াছড়ি জেলা সদর স্বনির্ভর বাজার ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এর কার্যালয় থেকে বের করে নারাঙহিয়া রেড স্কোয়ার হয়ে চেঙ্গী স্কোয়ারে যেতে চাইলে পুলিশে বাধা প্রদান করে। পরে সেখান থেকে ফিরে স্বনির্ভর বাজার শহীদ অমর বিকাশ চাকমা সড়কের এসে প্রতিবাদ সমাবেশের মধ্যে দিয়ে কর্মসূচি শেষ হয়ে।

সংগঠনের খাড়ছড়ি জেলা শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক অবনিকা চাকমার গণমাধ্যমে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানা যায়, সমাবেশে হিল উইমেন্স ফেডারেশন খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সদস্য এন্টি চাকমার সভাপতিত্বে ও থুইনুচিং মারমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলার সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের জেলা সাধারণ সম্পাদক রতন স্মৃতি চাকমা প্রমূখ।

সমাবেশ বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, গতকাল স্কুল টিফিনে বাড়ীতে খাবার খেতে এলে দুর্বৃত্তরা তাকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের পর নির্মমভাবে হত্যা করে বাড়ী নিচে একটি ছড়ার পাশে ফেলে যায়। ঘটনার একদিন অতিক্রম হলেও হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে পারেনি প্রশাসন।

তারা আরো অভিযোগ করে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের ধর্ষণ-খুুন-গুম-হত্যা-অপহরণ ও নির্যাতনের ঘটনা নতুন কিছু নয়। অপরাধীদের সুষ্ঠু বিচার না হওয়ায় এসব ঘটনা বার বার ঘটছে। এই মাসে ৫-৬ জনের নারী-শিশু-কিশোর এসব ঘটনার শিকার হলেও প্রশাসন অপরাধীদের গ্রেফতার করেনি ও উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করেনি।

সরকার একদিকে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী মাদক বিরোধীদের দমনের কথা বললেও অন্যদিকে সে সবের সাথে জড়িতদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছে। শনিবারের ঘটনার আগেও সেই ৯ মাইল এলাকায় সন্ত্রাসীরা গাড়ী থামিয়ে চাঁদা আদায় করেছিল। প্রকৃত অপরাধীদের আড়াল করে রেখে জনগণের পক্ষে যারা কথা বলে তাদেরকে ধরপাকড়-নির্যাতন-হত্যা-গ্রেফতার করছে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা, দীঘিনালা নয় মেইল এলাকা ত্রিপুরা স্কুল ছাত্রীকে হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *