দীঘিনালায় সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে হত্যার ঘটনায় স্ত্রীর মামলা


নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে মঞ্জুরুল আলম নামে এক যুবককে হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে। নিহতের স্ত্রী সুজাতা চাকমা বাদী হয়ে বুধবার (৮ আগস্ট) দুপুরে দীঘিনালা থানায় অজ্ঞাত ৮-১০জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। দীঘিনালা থানার ওসি আব্দুস সামাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে মঞ্জুরুল আলম এর লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে দীঘিনালার পোমাং পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে দুর্বৃত্তদের ব্রাশ ফায়ারে মঞ্জুরুল আলম নিহত হয়।। সে দীঘিনালার বাবুছড়া এলাকার মৃত মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে। মাথা, বুক, পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ২৩ রাউন্ড গুলির চিহ্ন রয়েছে।

এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে ৩৪ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করে নিরাপত্তা বাহিনী। মঞ্জুরুল আলমের ছোটভাই জানায়, মঞ্জুরুল আলম ১০ বছর আগে এক চাকমা সম্প্রদায়ের নারীকে বিয়ে করে। সংসারে দুই ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর থেকে মঞ্জুরুল আলম দীঘিনালা সদর উপজেলার পোমাং পাড়ায় বসবাস করছিল।

একটি আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলের সন্ত্রাসীরা মঞ্জুরুল আলমকে হত্যা করেছে এমন অভিযোগ করে নিহতের স্বজনরা খুনীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *