দীঘিনালায় পঞ্চাশ হাজার টাকার চুক্তিতে হত্যা করে মঞ্জু চাকমাকে


 

দীঘিনালা প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় পঞ্চাশ হাজার টাকার চুক্তিতে মঞ্জু চাকমাকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে আটককৃতরা।

বুধবার যৌথ বাহিনী গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রাঙ্গামাটি জেলার রিজার্ভ বাজার এলাকা  থেকে তাদের আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন, জ্ঞান জ্যোতি চাকমার পুত্র পূর্ণ কান্তি চাকমা (৩৫) এবং সন্ধি বিকাশ চাকমার পুত্র মহারথ চাকমা (৪১)। আটককৃতরা সবাই দীঘিনালা উপজেলার  মেরুং ইউনিয়নের শিমুলতলী এলাকার বাসিন্দা।

এসময় শরীরে তল্লাশী চালিয়ে একটি নাইন এমএম পিস্তল, এগার রাউন্ড গুলি, দুটি ম্যাগজিন, পঞ্চাশ হাজার টাকা এবং চারটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মঞ্জু চাকমার  ছেলে প্রনেশ চাকমা বাদী হয়ে রঞ্জন মনি চাকমাকে প্রধান আসামি করে ৩১জনের নামে দীঘিনালা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

জানাযায়, গত বুধবার সন্ধ্যায় রুপান্তর চাকমা পঞ্চাশ হাজার টাকার বিনিময়ে মঞ্জু চাকমাকে হত্যার চুক্তি করেন। পরে রুপান্তর চাকমার নির্দেশে মঞ্জু চাকমাকে হত্যা করে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়ে রাঙ্গামাটি চলে যায়। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাঙ্গামাটি  জেলার রিজার্ভ বাজার এলাকা থেকে অস্ত্রগুলিসহ এবং নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকাসহ আটক করা হয়।

দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) উত্তম কুমার দেব ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আটককৃতদের নামে অস্ত্র মামলার প্রস্তুতি চলছে। এছাড়া অধিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে।

উল্লেখ্য: গত ৭ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার মেরুং ইউনিয়নের শিমুলতলী গ্রামে জেএসএস(এমএন লারমা পক্ষ) গ্রুপের সক্রিয় কর্মী মঞ্জু চাকমাকে ব্রাশ ফায়ার করে একদল দুর্বৃত্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *