দীঘিনালায় কৃত্তিকা ত্রিপুরার হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল


দীঘিনালা প্রতিনিধি:
দীঘিনালায় কৃত্তিকা ত্রিপুরার হত্যাকারী  রবেন্দ্র ত্রিপুরা ওরফে শান্ত”র ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ দীঘিনালা উপজেলা শাখা কমিটি।
শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার বোয়ালখালী নতুন বাজার থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে উপজেলার লারমা স্কোয়ার প্রদক্ষিণ করে সমাবেশে মিলিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন দীঘিনালা উপজেলার বৃহত্তর পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের সাবেক সভাপতি ও ছাত্র নেতা সাদ্দাম হোসেন, বৃহত্তর বাঙালি ছাত্র পরিষদের দীঘিনালা উপজেলার সভাপতি আল-আমিন, সাধারণ সম্পাদক মুনসুর আলম হিরা, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ইলিয়াস আলী প্রমূখ।
বক্তারা অবিলম্বে কৃত্তিকা ত্রিপুরা হত্যাকান্ডে জড়িত সকল আসামিদের আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত বিচারের দাবি জানান এবং সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার হওয়া বাঙালিদের মুক্তির দাবি জানান। শনিবার দুপুরে উপজেলার লারমা স্কোয়ার থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ আসামি শান্তকে গ্রেফতার করে।
সে  জনসংহতি সমিতির এমএন লারমা পক্ষের কেন্দ্রীয় যুব সমিতির সহ-সভাপতি।
এব্যাপারে দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ অাবদুস সামাদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, অাটক রবেন্দ্র ত্রিপুরা ওরফে শান্ত খাগড়ছড়ি সদর থানার একটি হত্যা মামলার পলাতক অাসামি, এবং দীঘিনালা উপজেলার নয়মাইল এলাকার কৃত্তিকা ত্রিপুরা হত্যা মামলার সন্দিগ্ধ অাসামি। কৃত্তিকা ত্রিপুরা ধর্ষণ ও হত্যা ঘটনার দিন সে ওই নয়মাইল এলাকায় চাঁদা কালেক্টরীর দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলো।
 উল্লেখ্য, গত ২৮ জুলাই শনিবার দুপুরে উপজেলার মেরুং ইউনিয়নের নয়মাইল এলাকায়  স্কুলছাত্রীর কৃত্তিকা ত্রিপুরা(১২) কে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। সে মৃত নরোত্তম ত্রিপুরার মেয়ে এবং নয় মাইল ত্রিপুরা গুচ্ছগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী। ঘটনার পর পুলিশ ও এলাকাবাসী পাশের বাগান থেকে রাত সাড়ে দশটায় নিহতের লাশ উদ্ধার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *