থানছিতে শিক্ষার মান উন্নয়নে প্রশাসনের ব্যাপক পদক্ষেপ


থানছি প্রতিনিধি :
বান্দরবানের দুর্গম থানছি উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনে যৌথ উদ্যোগে তৃণমূল পর্যায় হতে মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের শিক্ষার মান-উন্নয়ন ও পরিবর্তনে ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

এই উপলক্ষে থানছি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন যৌথ আয়োজনে চলতি মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থী ও অবিভাবকদের সমাবেশ, তৃনমূলের রক্স (আনন্দ স্কুল) শিক্ষক, এসএমসি কমিটি সভাপতি, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড (ইউনিসেফ) এর প্রাক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, এসএমসি কমিটি সভাপতি ও কারবাড়ী, হেডম্যান, জন প্রতিনিধি, বিশিষ্টজন ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে গণসমাবেশ আয়োজন করেন। শনিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় থানছি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদেরকে আসন্ন দিনগুলিতে এইভাবে পরিচালনা করতে নির্দেশ দেয়া হয়।

অপরদিকে সমাবেশে অংশগ্রহণকারী তৃনমূলের রক্স(আনন্দ স্কুল) শিক্ষক, এসএমসি কমিটি সভাপতি, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড (ইউনিসেফ) এর প্রাক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, এসএমসি কমিটি সভাপতিদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে মানসিকতা ও দায়িত্ববোধ ঝড়ে যাওয়া শিক্ষার্থীদের স্বষ্ফুর্ত অংশগ্রহন নিশ্চিৎ করার পরামর্শ দেওয়া হয়। সরকারি ছুটির দিন ব্যতিত দৈনিক ২ ঘন্টা ক্লাশ করতে হবে। শিক্ষক এসএমসি কমিটি সকলের সাথে সমন্বয় থাকতে বাধ্যতামূলক, সকল শিক্ষকদের বেতন হবে নিজ নিজ একাউন্ট মাধ্যমে মাসের শেষে ট্রান্সফা করা হবে, একই নীতিতে কারবাড়ী হেডম্যানদের বেলা ও নিজ নিজ একাউন্ট করা বাধ্যতামূলক সরকারীভাবে সম্মানি ও ভাতা একাউন্টে পৌছানো ব্যবস্থা করবে প্রশাসন । উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের কড়া নজরদারি মধ্যে এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে সমাবেশে।

উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক সাহাদাৎ হোসেনের সঞ্চালনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বকুলি মারমা,উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ, প্রেস ক্লাবের সভাপতি অনুপম মারমা, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. নিজাম উদ্দিন, রক্স স্কুলে ট্রেনিং অফিসার (টিসি) বিশ্বজিত দাশ,ইউনিসেফ এর প্রকল্প কর্মকর্তা ডিপেন্দ্র নাথ,ইউপি চেয়ারম্যান মালিরাং ত্রিপুরা, শান্তি রাজ মিশনের ফাদার বিকাশ, মুইশৈতুই হেডম্যান, তিন্দু ইউনিয়নে সাবেক চেয়ারম্যান মংপ্রুঅং মারমা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, আগামী ডিসেম্বর মধ্যে সকল বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরীক্ষা শেষে জানুয়ারির ২য় সপ্তাহের মধ্যে তৃনমূল পর্যায়ে সরকারি বেসরকারি এনজিও পরিচালিত সকল বিদ্যালয়ে শিক্ষক শিক্ষিকা অবিভাবকদের নিয়ে সম্মেলন আয়োজন করার মতামত দিয়েছে। সম্মেলনের প্রশাসনিকভাবে আরো কঠোর করে সরকারি নিতিমালা ও শিক্ষামান উন্নয়নের ব্যাপক পরিবর্তনে সকলের সহযোগিতা করার আহব্বান জানানো হয় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *