থানচি ছাত্রাবাসে মহিলা শিক্ষিকা নিয়োগের সুপারিশ


থানচি প্রতিনিধি:

থানচি উপজেলার কোমলমতি শিক্ষার্থীদের একমাত্র ছাত্রাবাসের শিক্ষক ও কর্মচারী কর্তৃক ছাত্রীদেরকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের ফলে ছাত্রীরা পালিয়ে যাচ্ছে বলে প্রতিয়মান হচ্ছে। সোমবার (১৪ মে) ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রী পালিয়ে গেছে। তাকে বলিপাড়া থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ছাত্রাবাসে কোন প্রকার পুরুষ শিক্ষক রাখা যাবেনা এবং সমপরিমান মহিলা শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

মঙ্গলবার (১৫ মে) সকাল ১০টায় উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত মাসিক আইন-শৃঙ্খলা সভায় ওই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। জনসেবা কেন্দ্রে (গোললঘরে) অনুষ্ঠিত মাসিক এ আইন-শৃঙ্খলা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম।

সভায় উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বকুলি মারমা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন থানচি থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুস সাত্তার ভুইয়া, বিজিবি থানচি ক্যাম্পের হাবিলদার আবু হাসান, সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর মোহাম্মদ, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ( শহিদ), আওয়ামী লীগের সভাপতি মংথোয়াইম্যা মার্মা রনি, সদর ইউপি চেয়ারম্যান মাংসার ম্রো, তিন্দু ইউপি চেয়ারম্যান মংপ্রু অং মার্মা, রেমাক্রী ইউপি চেয়ারম্যান মুইশৈথুই মার্মা (রনি) সহ আইন শৃঙ্খলা কমিটির অন্যান্য সদস্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *