থানচিতে সঞ্চয়ী টাকায় নতুন স্বপ্ন দেখছে হত দরিদ্র ৪০ পরিবার



থানচি প্রতিনিধি:

হত দরিদ্র ও বেচেঁ থাকার সম্বল বলতে কিছু নেই । তারা এবারের স্বপ্ন দেখছে সমাজে ছেলেমেয়েদের নিয়ে নতুন করে উঠে দাঁড়াতে । বাড়ির আঙ্গিনায় শাক সবজি চাষ ,হাঁস মুরগি, গবাদি পশু, গরু, ছাগল পালন করে স্বাবলম্ভী হতে চায় । তিন্দু ইউনিয়নের বিধবা মেবুমা মারমা(৩০), থানচি সদর ইউনিয়নের মমতাজ বেগম(২৮) সহ তাদের মতো ৪০ পরিবার সে স্বপ্ন দেখছে ।

রবিবার (১২ আগস্ট) বিকাল ২টা থানচি উপজেলা পরিষদের মিলনায়তনে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আয়োজনে পল্লী কর্মসংস্থা ও সড়ক রক্ষানাবেক্ষণ কর্মসূচী-২ (আর ই আরএমপি-২) বাস্তবায়নকৃত প্রকল্পের কর্মীদের জমাকৃত টাকা চেক ও সনদ পত্র বিতারণ করেন।

২০০৯ সালে বাংলাদেশ সরকারের প্রধান গ্রামীণ এলাকায় হত দরিদ্র পরিবারগুলোকে মধ্যম আয়ের পরিনত করার লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে রুরাল এমপ্লয়মেন্ট এন্ড রোড মেইনটেনেন্স প্রোগ্রাম-২ (আরইআরএমপি-২) প্রকল্প কাজের বাস্তবায়নের জন্য তাগিদ দেন । দীর্ঘদিন থেকে ২০১৪ সালে ১৬ই মার্চ রুরাল এমপ্লয়মেন্ট এন্ড রোড মেইনটেনেন্স প্রোগ্রাম-২ (আরইআরএমপি-২) বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে মাধ্যমে প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়েছিল।

থানচিতে ৪টি ইউনিয়ন হতে ৪০ পরিবারকে এই প্রকল্পের নিয়োগ দেয়া হয়েছিল । তাদের হাতে গ্রামীণ অবকাঠামোগত উন্নয়নের অভ্যন্তরীন যোগাযোগ রাস্তাঘাট পরিস্কার পরিছন্ন করাসহ রক্ষানাবেক্ষণ কাজের কাজ করে আসছে । প্রতি পরিবারকে প্রতিদিন দেড় শত টাকা করে প্রদানের কথা থাকলেও এক শত টাকা প্রদান করে বাকি ৫০ টাকা তাদের নামে থানচি উপজেরা সোনালী ব্যাংকের একটি সঞ্চয়ী হিসাব খুলে দেন । সে টাকা প্রতিজনের চার বছর পর ৭৩ হাজার ৩৪৫ টাকা দাড়ালে হত দরিদ্র মহিলাদের সঞ্চয়ী টাকা দিয়ে ভিন্নখাতে স্বপ্ন দেখছেন ।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে কমিউনিটি অরগানাইজার মোঃ নিজাম উদ্দিন সভাপতিত্বে বিতারন সভায় উপজেলা পরিষদের বাইস চেয়ারম্যান চসাথোয়াই মারমা (পকশৈ) প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেরা প্রেস ক্লাবের সভাপতি অনুপম মারমা, তিন্দু ইউপি চেয়ারম্যান মংপ্রুঅং মারমা, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর বান্দরবান জেলা কার্যালয়ের প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা হোসেইন মোহাম্মদ মাসুদ আলম, অফিস সহকারী আজিম উদ্দিন, ফিল্ড অফিসার আমীরুল ইসলাম প্রমুখ ।

সভা শেষে ৪০ জন হত দরিদ্র মহিরাদের ৭৩ হাজার ৩৪৫ টাকা সঞ্চয়ী চেক ও প্রশিক্ষনের সনদ পত্র তুলে দেন অতিথিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *