থানচিতে জেএসসি পরীক্ষায় ৪জন শিক্ষার্থী অংশ নেননি


থানচি প্রতিনিধি:

শিক্ষার্থীদের স্বতর্ষ্ফুত অংশ গ্রহণ ও শান্তি পূর্ণ ভাবে থানচি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা চললেও প্রথম দিনের পরিবারের আর্থিক অস্বচ্ছলতা ও বিয়ে কারণে ৪জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা অংশ নেন নি।

পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব ও থানচি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ জানান অনুপস্থিত থাকা ৪জনই প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সাথে যোগাযোগ মিলেনি। বলিপাড়া বাজার হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবদুল গনি জানান, আমার স্কুলের রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত ৪ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে পারেনি। চারজন এর মধ্যে থেকে একজনের পরীক্ষার আগেই বিয়ে হয়ে যায়। অপর তিনজনকে যোগাযোগ করতে চাইলেও দুর্গমতার কারণে তা সম্ভব হয়নি।

চলতি বছরে বাংলা প্রথম পত্রে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে তিনটি স্কুল বলিপাড়া বাজার বেসরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সান ফ্রান্সিস জুনিয়র হাই স্কুল। ২৩৫জন পরীক্ষার্থী মধ্যে ২৩১জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। ছাত্র ১২৪জন ছাত্রী ১০৭জন। যে চারজন পরীক্ষা অংশ গ্রহণ করেনি তারা হলো মেঘদালিনা ত্রিপুরা রোল-২৮২২৫৬, প্রিয়ই খূমী রোল-২৮২২৭৯,ক্যক্যওয়াং মারমা রোল-২৮২৩৩৯, লংসাই খুমী রোল-২৮২৩৬৪, পরিবারে অর্থনৈতিক অভাবে অংশ গ্রহণ করেনি বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানান।

সরকারি সময় সূচিনুসারে পরীক্ষা গ্রহণ করেছেন কর্তৃপক্ষ। উপজেলা ভিজিলেন্স টিমের সদস্য ছাড়াও  কেন্দ্রের সচিব ও প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ, বলিপাড়া বাজার হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবদুল গনি, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুর সাক্তার, মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি মংবোওয়াংচিং মারমা , ভিজিলেন্স টিমের মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এইচএম সাইদ হাসান, সোনালী ব্যাংক শাখা ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ গিয়াজ উদ্দিন, প্রাথমিক শিক্ষা সহকারী অফিসার নিজাম উদ্দিন পরীক্ষা কেন্দ্রের পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন। সকাল বিকাল পরীক্ষা চলাকালীন সময় পরীক্ষা হলে চতুর দিকে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী জোরদার থাকায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *