তিন’শ পর্যটক নিয়ে বঙ্গোপসাগরে পর্যটকবাহী জাহাজ বিকল


টেকনাফ প্রতিনিধি:

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে ৩০০জন পর্যটক নিয়ে বঙ্গোপসাগরে আটকা পড়েছে এফভি কাজল নামের পর্যটকবাহী একটি জাহাজ।  এতে জাহাজে থাকা যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। জাহাজটি রাতে মিয়ানমারের সীমানায় অবস্থান করেছিল। জাহাজে ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী পরিবহন করায় ইঞ্জিন বিকল হয়েছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেছেন।

সোমবার (১৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জাহাজটি সচল করা সম্ভব হয়নি।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক বলেন, দু’টি ইঞ্জিনই বিকল হয়ে পড়ায় জাহাজটি আটকা পড়েছে। এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। উদ্ধার তৎপরতা চালাতে কুতুবদিয়া নামের জাহাজকে পাঠানো হয়েছে। রাতেই জাহাজটি টেকনাফের উদ্দেশে রওনা হতে পারবে।

প্রতিদিনের ন্যায় টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশে ছেড়ে যায় জাহাজ এফভি কাজল। বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে জাহাজটি আবারও সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফের পথে রওনা হয়। তবে সাগরের মাঝামাঝি স্থানে এসে দু’টি ইঞ্জিনই বিকল হয়ে বঙ্গোপসাগরে আটকা পড়ে।

জাহাজে আটকাপড়া যাত্রীদের মধ্যে কামাল হোসেন নামে একজন মোবাইল ফোনে জানান, জাহাজে থাকা যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। জাহাজটি ভাসতে ভাসতে মিয়ানমারের দিকে চলে যাচ্ছে। আটকা পড়া নারী-শিশুরা কান্নাকাটি করছে।

এদিকে গত বছরেও পর্যটক ভরা মৌসুমে ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনের দায়ে উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কাজল জাহাজকে জরিমানা করেছিলেন।

জাহাজে আটকা পড়া ঢাকা মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা একাধিক যাত্রী মুঠোফোনে এসব কথা জানিয়ে তাদের উদ্ধারে সহযোগিতা চেয়েছেন।

জাহাজের যাত্রীদের অভিযোগ, সকালে জাহাজে উঠে তারা চেয়ারে বসার জায়গা পাননি। এমনকি দাঁড়ানোর জায়গাও ছিল না। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক বলেন, জাহাজের পর্যটকদের নিরাপদে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *