পানছড়ির ভিক্ষুক পূনর্বাসন তালিকায় নেই ‘সাবজান বিবি’!


 

নিজস্ব প্রতিবেদক, পানছড়ি:

পানছড়ি উপজেলায় ভিক্ষুক পুনর্বাসিত কর্মসূচীর আওতায় উল্টাছড়ি ইউপির ১৮ জনকে নগদ টাকা ও ছাগল দিয়ে পুনর্বাসিত করা হলেও সেই তালিকায় নেই ৮০ বছর বয়সী শ্রবণ প্রতিবন্ধী সাবজান বিবির নাম।

অথচ স্বামীহারা গৃহহীন সাবজান বিবি প্রায় ২০ বছরের অধিক সময় ধরে পানছড়িতে ভিক্ষাবৃত্তি পেশায় জড়িত। এলাকায় রেশন কার্ডধারী ও অন্যান্য সুবিধাভোগীরা এরই মাঝে তালিকাভুক্ত হয়ে পুনর্বাসিত হওয়ার পথে।

যাদের মধ্যে রয়েছে আবদুছ ছাত্তার, পিতা- রমজান আলী, কার্ড নং- ৩৬৩২, খোরশেদ আলম, পিতা-মৃত আবদুল মতিন, রেশন কার্ড নং-৩৫৯৯, আফিয়া খাতুন, স্বামী- আলী মিয়া, কার্ড নং- ৩৫১৮, আলফত বেগম, স্বামী- মৃত মহবাত আলী, কার্ড নং- ৩৮৩১ সহ আরও কয়েকজন।

মোল্লাপাড়া’র লবণ ব্যাপারী (কাশিঘাট) এলাকার মৃত মহরম আলীর স্ত্রী বয়োবৃদ্ধ সাবজান বিবির নাম তালিকায় না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে অনেকেই।

মোল্লাপাড়ার ইউপি সদস্য রিপন মিয়া জানান, ভিক্ষুক তালিকা কখন হয়েছে এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না তিনি।

এলাকায় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প থেকে যাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল, তারা যাচাই-বাছাই না করেই আত্মীয়স্বজনকে প্রধান্য দেয়ায় প্রকৃত ভিক্ষুকেরা তালিকায় আসে নাই।

একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের পানছড়ির সমন্বয়ক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, যারা তালিকাভুক্ত হয়নি তাদের অবশ্যই তালিকায় আনা হবে। তবে যাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল তারা স্বচ্ছতা না রেখে আত্মীয়করণ করায় তিনি দু:খ প্রকাশ করেন এবং এ ব্যাপারে তিনি দেখবেন বলেও জানান।

এদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল হাশেম ৬ মাসের মধ্যে পানছড়িকে ভিক্ষুকমুক্ত করার ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন।

এলাকাবাসীর দাবি উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করলেই সাবজান বিবির মতো অসহায় ভিক্ষুকেরা অগ্রাধিকার পাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *