টেকনাফে ৬ কোটি টাকা মূল্যের ইয়াবাসহ চার পাচারকারী আটক


unnamed-copy

টেকনাফ প্রতিনিধি:

টেকনাফে বিজিবি’র পৃথক অভিযানে ৬কোটি টাকা মূল্যের ২লক্ষ পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করেছে। তম্মধ্যে একটি অভিযানে ৪জন ইয়াবা পাচারকারী আটক এবং ১টি হস্তচালিত নৌকা জব্দ করা হয়েছে। টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা থেকে এসব ইয়াবা উদ্ধার এবং পাচারকারী আটক করা হয়েছে।

সোমবার টেকনাফস্থ ২বিজিবি অধিনায়কের পক্ষে উপ-পরিচালক মুহাম্মদ আবদুল্লাহিল মামুন প্রেস রিলিজের মাধ্যমে জানান, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান আসার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দমদমিয়া বিওপির নায়েক মো. মনিরুল ইসলামের নেতৃত্বে বিশেষ টহল দল রবিবার রাত ৯টায় জাদিমুরা ডিউটি পোস্টের পাশে উৎপেতে থাকেন। এসময় ৪জন লোক একটি হস্তচালিত নৌকা নিয়ে টহল দলের কাছাকাছি আসলে টহল দল স্পীডবোট নিয়ে চ্যালেঞ্জ করলে তারা পালিয়ে যেতে চেষ্টা করে। টহল দল তাদেরকে দ্রুত আটক করে নৌকার পাটাতনে ফিটিং অবস্থায় ২০হাজার পিস ইয়াবা বড়ি পান। যার মূল্য ৬০লক্ষ টাকা। আটককৃতরা হচ্ছে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা ব্রিটিশপাড়া জাফর আলমের ছেলে মো. হাসান (২৬), লাল মিয়ার দুই ছেলে শাহ আলম (৩৫) ও মো. আজিজ (২৩), মিয়ানমারের মংডু থানাধীন গউজিবিল গ্রামের মৃত শরীফের ছেলে মো. ইলিয়াছ (২৫)। উদ্ধারকৃত ইয়াবাসহ আটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান আসার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রবিবার সকাল ১০টায় টেকনাফস্থ ২ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্ণেল আবু জার আল জাহিদের নেতৃত্বে বিশেষ টহল দল জাদিমুরা ডিউটি পোস্টের পাশে উৎপেতে থাকেন। এসময় কয়েকজন লোক একটি হস্তচালিত নৌকা নিয়ে টহল দলের কাছাকাছি আসলে টহল দল স্পীডবোট নিয়ে চ্যালেঞ্জ করলে তারা নৌকা ফেলে পানিতে ঝাঁপ দিয়ে শুন্য রেখা অতিক্রম করে মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরে তল্লাশী করে নৌকার পাটাতনে ফিটিং অবস্থায় ১লক্ষ ৮০হাজার পিস ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়। যার মূল্য ৫কোটি ৪০লক্ষ টাকা। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ব্যাটালিয়ান সদর দপ্তরে রাখা হয়েছে। যা যথাসময়ে সংশ্লিষ্টদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *