টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করলেন জাতিসংঘের বিশেষ দূত


টেকনাফ প্রতিনিধি:

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সহিংসতার মুখে সেদেশের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের মানবিক পরিস্থিতি সরজমিনে দেখতে কক্সবাজারের টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পরিদর্শন করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থার বিশেষ দূত ইয়াং হি লি। এসময় রোহিঙ্গারা বিভিন্ন দাবি পেশ করেন।

শনিবার(২০ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জাতিসংঘের বিশেষ দূত ইয়াং হিলি’র নেতৃত্বে অপর ৪ সদস্যসহ একটি  প্রতিনিধি দল উপজেলার নেচারপার্ক সংলগ্ন রোহিঙ্গা বস্তি পরিদর্শন করেন।

এসময় তিনি রোহিঙ্গা নারী-পুরুষের সাথে কুশল বিনিময় করে তাদের জীবনযাত্রা ও মানবিক পরিস্থিতির ব্যাপারে খোঁজ-খবর নেন। এরপর তিনি নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার্ড শরণার্থী ক্যাম্প ও নব নির্মিত আনসার ক্যাম্প সংলগ্ন নয়াপাড়া রোহিঙ্গা বস্তি পরিদর্শন করেন। সেখানেও তিনি ঘুরে-ফিরে দেখে তিনি রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেন।

এমতাবস্থায় একদল রোহিঙ্গা ব্যানার নিয়ে স্বদেশে ফেরত যেতে হলে মিয়ানমারে নির্যাতন বন্ধ করতে হবে, মিয়ানমার কারাগারে থাকা রোহিঙ্গাদের মুক্তি দিতে হবে, নিজেদের পুরান বসত-ভিটায় থাকতে দিতে হবে, চাকরি ও ভোটাধিকারের ক্ষেত্রে সমান নাগরিক সুযোগ-সুবিধা এবং স্বাধীনভাবে ধর্ম-কর্ম পালনের সুযোগ দিতে হবে। তাহলে আমরা ফিরে যেতে চায় বলে বিভিন্ন দাবি পেশ করেন।

এরপর বিকালে তিনি হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনছিপ্রাংয়ের রইক্ষ্যংস্থ পুটিঁবনিয়া ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। সেখানে তিনি কর্মরত এনজিও সমূহের কাজের মান পর্যবেক্ষণ করে সাধারণ রোহিঙ্গাদের মতামত গ্রহণসহ বিশেষ বৈঠক করেন।

তিনি বিভিন্ন ক্যাম্প পরিদর্শনকালে মিয়ানমারে ফেরত যাবে কিনা এবং কোন কোন পদক্ষেপ নিলে তারা ফেরত যাবে সে বিষয়েও জানতে চান। এরপর সন্ধ্যায় তিনি কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে ক্যাম্প ত্যাগ করেন। এসময় আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) এবং বিভিন্ন দাতা সংস্থার লোকসহ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *