টেকনাফে দাফনের ১ বছর পর অক্ষত লাশ নিয়ে চাঞ্চল্য


নিজস্ব প্রতিনিধি, কক্সবাজার:

টেকনাফে দাফনের এক বৎসর পর অক্ষত অবস্থায় পাওয়া এক লাশ নিয়ে চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। লাশটি একজন রোহিঙ্গা নারীর বলে জানা গেছে।

বুধবার (১৮ জুলাই) সকালে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড হাবিরছড়া গ্রামের সাগর পাড়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত কোরবানীর ঈদের কয়েকদিন পর মিয়ানমারের বৌদ্ধদের নির্যাতনে রাখাইন রাজ্য ছেড়ে পালিয়ে আসার সময় বঙ্গোপসাগরে নৌকাডুবে ৪ রোহিঙ্গা নারীর লাশ
ওই এলাকার পশ্চিমের সৈকতে ভেসে আসে। মুসলমান হিসেবে স্থানীয়দের সহযোগিতায় জানাজা পড়ে ৩ জনকে দরগারছড়া-হাতিয়ারঘোনা কবরস্থানে ও একজনকে হাবিরছড়া সাগর পাড়ের ঝাউবনে দাফন করা হয়।

চলতি বর্ষায় পানি ও জোয়ারের তোড়ে হাবিরছড়ার ঝাউবাগান প্রায় বিলিন হয়ে যায়। বুধবার সকালে জেলেরা সাগরে মাছ শিকারে যাওয়ার সময় ১ বছর আগে দাফন করা ঐ অজ্ঞাত রোহিঙ্গা নারীর লাশ দেখতে পায়।

এ খবর সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় চাঞ্চল্য দেখা দেয়। পরে স্থানীয় লোকজন ঐ নারীর অক্ষত লাশ হাবিরছড়া কবরস্থানে নিয়ে আবার দাফনের ব্যবস্থা করেন।

হাবিরছড়া জামে মসজিদের খতিব মাও. মুহিউদ্দিন এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশটি আমি সাগরপাড় থেকে যুবকদের সহযোগিতায় এনে নিজ হাতে দাফন দিয়েছি।

সৈয়দ আহমদ, বলেন ১ বছর আগে আমরা ঝাউবনে লাশটি দাফন করেছিলাম, সেদিন যেভাবে দেখেছি আজও একই ভাবে আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *