জুয়ার আসর গুঁড়িয়ে দেওয়ায় চকরিয়ায় ব্যাপক তাণ্ডব ও লুটপাট মহিলাসহ আহত ৫


Chakaria Pic. 07.03

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ার কাকারার হযরত শাহ ওমর (র.) মাজারের ওরসে বসানো জুয়ার আসর গুঁড়িয়ে দেওয়ার ঘটনার জের ধরে মাজার কমিটির লোকজনের বেশ কয়েকটি বসতবাড়ি ও দোকানে ব্যাপক ভাঙচুর, তাণ্ডব, ও লুটপাট চালিয়েছে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা।

এ সময় বাধা দেওয়ার চেষ্টা করায় দুর্বৃত্তরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত করা হয় নারীসহ পাঁচজনকে। তন্মধ্যে তিনজনকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। সোমবার রাতে কাকারার মাইজ কাকারা গ্রামে এ তাণ্ডব ও লুটপাট চালায় দুর্বৃত্তরা।

মাজার পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি রশিদ আহমদ জানান, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নাম ভাঙিয়ে একদল সশস্ত্র দুর্বৃত্ত মাজার এলাকায় জুয়ার আসর বসায় ওরস চলাকালীন। এনিয়ে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনের লোকজন এসে তা গুঁড়িয়ে দেয়। এর জের ধরে সোমবার রাতে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা তাণ্ডব ও লুটপাট চালায় মোস্তফা কামাল নিশান, সাহাব উদ্দিন ও ডা. ফিরোজের বসতবাড়িতে। দোকান ভাঙচুর করা হয় আজিজুল হকের মুদির দোকান, আবুল কালামের কুলিং কর্ণার, নারায়ণ বাবুর চায়ের দোকানে। এ সময় সেখানে থাকা একটি চাঁদের গাড়িতেও ব্যাপক ভাঙচুর চালায় তারা। এতে কম করে হলেও ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে।

তিনি জানান, তাণ্ডব চালানোর সময় বাধা দেওয়ার চেষ্টা করায় কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত করে অহিদুল ইসলাম (২২), রাহেলা বেগম (৪৫) ও মো. মঈন উদ্দিনকে (৩০)। আহতদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়াও আরও দুইজন আহত হয়।

কাকারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত ওসমান বলেন, ‘মাজারের ওরসে জুয়ার আসর বসানোতে বাধা দেওয়ার জের ধরে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা ফাঁকা গুলি, বসতবাড়ি ও দোকানে তাণ্ডব ও লুটপাট চালিয়েছে।’

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি মো. জহিরুল ইসলাম খান বলেন, মাজারের ওরসে বসানো জুয়ার আসর একাধিকবার ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। এর জের ধরে যারা মাজার কমিটির লোকজনের বসতবাড়িতে তাণ্ডব ও লুটপাট চালিয়েছে তাদের বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হবে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *