জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সরকারের অবদান বিশ্বজুড়ে স্বীকৃতি পেয়েছে


 

রামু প্রতিনিধি:

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধিন এ সরকারের অবদান বিশ্বজুড়ে স্বীকৃতি পেয়েছে। সরকারের একের পর এক যুগান্তকারী পদক্ষেপের বিভিন্ন দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মানুষের মৃত্যুর হার রেকর্ড পরিমান কমে গেছে।

তিনি বলেন, কেবল স্বাস্থ্যখাতে নয়, জনগণের সকল চাহিদা পূরনে আওয়ামী লীগ সরকার সফল হয়েছে। ম্যালেরিয়া রোগ এক সময় কক্সবাজারবাসীর জন্য ছিলো আতঙ্কের। এখন তা আর নেই। বর্তমান সরকার জনস্বার্থে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের মাধ্যমে ব্র্যাকের কারিগরি সহায়তায় মুক্তি কক্সবাজারের অধিনে ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে জনসাধারণকে কীটনাশকযুক্ত মশারী বিতরণ করা হচ্ছে। এ মশারী যথাযথ ব্যবহারের মাধ্যমে সবাইকে ম্যালেরিয়া নির্মূলে স্বোচ্চার হতে হবে।

সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল রবিবার (১১ মার্চ) বেলা ১২টায় রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে দীর্ঘস্থায়ী কীটনাশকযুক্ত মশারী বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। মুক্তি কক্সবাজার ও রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. আবদুল মন্নান।

এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, মুক্তি কক্সবাজার এর প্রধান নির্বাহী বিমল চন্দ্র দে সরকার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফরিদা ইয়াছমিন, কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য শামসুল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা মাস্টার ফরিদুল আলম, রামু উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নীতিশ বড়ুয়া, সূর্যের হাসি ক্লিনিকের ব্যবস্থাপক খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, মুক্তি কক্সবাজার এর সহ সভাপতি অধ্যাপক জেবুন্নেছা, সহ সম্পাদক বাবলা পাল, কার্যনির্বাহী সদস্য মাসুদা মোর্শেদা আইভি প্রমুখ।

মুক্তি কক্সবাজার এর প্রধান নির্বাহী বিমল চন্দ্র দে সরকার বলেন, ২০১৮ সালে এ কর্মসূচির আওতায় ১ লাখ ৪৫ হাজার মশারী বিতরণ করা হবে। এরমধ্যে সেনাবাহিনী ও বিজিবি সদস্যদের জন্য ৯ হাজার মশারী এবং কমিউনিটি পর্যায়ে বিতরণ করা হবে ১ লাখ ৩৬ হাজার মশারী।

মুক্তি কক্সবাজার পিও সনজয় বৈদ্যের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মুক্তি কক্সবাজারের ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচির প্রকল্প ম্যানেজার মো. জসিম উদ্দিন, উপজেলা ম্যানেজার দুলাল বড়ুয়া এবং জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের স্বাস্থ্যকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *