চবিতে পাহাড়ি শিক্ষার্থীদের দ্বন্দ্বে আহত ৩


নিজস্ব প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের দুই নম্বর গেইট এলাকার একটি ‘কটেজে’ পাহাড়ি ছাত্রদের মধ্যে দ্বন্দ্বে এক পক্ষের হামলায় অন্য পক্ষের তিনজন আহত হয়েছেন।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনায় আহত তিন শিক্ষার্থী হলেন সুবিনয় চাকমা (২৩), নিউটন চাকমা (২০) ও অমৃত চাকমা (২০)। তারা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সুবিনয় বাংলা বিভাগের এবং নিউটন ও অমৃত পালি বিভাগের শিক্ষার্থী।

আহতরা ইউপিডিএফ সমর্থিত ‘বৃহত্তর চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদে’র চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য।

তাদের অভিযোগ, জেএসএস সমর্থিত ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ’র নেতাকর্মীরা এ হামলা চালিয়েছে। তবে সেই অস্বীকার করেছে ওই সংগঠনটির নেতারা।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে হলের বাইরে ব্যক্তি মালিকানার টিন শেডের ছোট ছোট ঘরে ভাড়া থাকেন শিক্ষার্থীরা; সেগুলোকে কটেজ বলে। দুই নম্বর গেইট এলাকার নাহার কটেজে পাহাড়ি ছাত্রই বেশি।

রোববার বিকাল থেকে কটেজে পাহাড়ি শিক্ষার্থীদের দুই পক্ষে উত্তেজনা চলছিল।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে ইউপিডিএফ সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সুনয়ন চাকমা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “গতকাল বিকেলে কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ থেকে ফেরার পথে ওদের ছেলেরা আমাদের ছেলেদের উপর হামলা করেছিল।

“ওই ঘটনায় রাতে হাটহাজারী থানায় অভিযোগ দিয়ে ফেরার পথে শাহজালাল হলের সামনে আবারও তারা হাতাহাতিতে জড়ায়। থানায় অভিযোগ করার কারণে সকালে কটেজে এসে হামলা করেছে।”

অন্যদিকে জেএসএস সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মনস্বী চাকমা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “কিছুদিন ধরেই ওরা আমাদের ছেলেদের ক্যাম্পাস থেকে বিতাড়িত করতে নানাভাবে হেনস্তা করছিল।

“এরই ধারাবাহিকতায় তারা নাহার কুঞ্জে আমাদের সমর্থকদের অপহরণ করতে গেলে আমরা প্রতিহত করি।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের অন্তর্কোন্দলের কারণে এই ঘটনা ঘটেছে। দুই পক্ষই আমাদের কাছে অভিযোগ করেছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

 

সূত্র: বিডি নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *