parbattanews bangladesh

চকরিয়া পৌরসভার বাজেট ঘোষণা

 

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভার ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৪৪ কোটি ৩১ লাখ ৫০ হাজার টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। নতুন কর আরোপ ছাড়াই এ বাজেট ঘোষণা করা হয়। ১৯৯৪ সালে চকরিয়া পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর থেকে চলতি অর্থবছরের বাজেট হচ্ছে এ যাবতকালের সর্বোচ্চ বাজেট। চকরিয়া পৌরসভার হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মো. সফায়াত হোসেন ও সচিব মাসউদ মোরশেদ গত বৃহস্পতিবার(২০ জুলাই) বিকালে এ বাজেট পেশ করেন।

চকরিয়া পৌরসভার সচিব মাসউদ মোরশেদ এ বাজেট নিয়ে বলেন, চকরিয়া পৌরসভায় পৌর কর্তৃপক্ষ ছাড়াও এলজিইডি, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল, পাউবোসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তর থেকে অন্তত ৩শত কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ বর্তমানে বাস্তবায়নে চলমান রয়েছে।

বাজেট নিয়ে চকরিয়া পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর চৌধুরী বলেন, লক্ষাধিক জনসংখ্যা অধ্যুষিত ১৫দশমিক ৪৩ বর্গকিলোমিটার আয়তনের চকরিয়া পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে রাস্তাঘাট, ড্রেন নির্মাণসহ অবকাঠামোগত উন্নয়নের উপর জোর দেয়া হয়েছে চলতি বাজেটে। এছাড়া বাজেটে দারিদ্র বিমোচন, তথ্যপ্রযুক্তি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, খেলাধুলা, যানজট নিরসন, জলাবদ্ধতা দূরীকরণ,

বজ্য ব্যবস্থানা সংস্কার ও রাস্তায় বাতি স্থাপনে বিশেষ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। চলতি বছরের এ বাজেটে সবচেয়ে বেশি আয়ের খাত দেখানো হয়েছে মিউনিসিপ্যাল গভর্নেন্স সার্ভিসেস প্রজেক্ট (এমজিএসপি) থেকে ৩৩ কোটি টাকার বেশি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রাজস্ব খাত থেকে কোট ৭২ লাখ টাকা সম্ভাব্য আয় দেখানো হয়েছে। এছাড়া এলজিইডি’র গুরুত্বপূর্ণ শহর অবকাটামো উন্নয়ন প্রকল্প থেকে কোটি, জনস্বাস্থ্য বিভাগ থেকে ৩ কোটি টাকা সম্ভাব্য আয় দেখানো হয়েছে।

মেয়র আলমগীর চৌধুরী আরও বলেন, নতুন অর্থবছরে চকরিয়া পৌরসভাকে মডেল পৌরসভায় রুপান্তর করার লক্ষ্যে আপ্রাণ চেষ্টা চালানো হবে। তাই অবকাঠামো, নালা-নর্দমা, রাস্তা, কালভার্ট নির্মাণকে অত্যাধিক গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। পৌরসভায় প্রায় ৫০ হাজার ভোটার রয়েছে। প্রথম শ্রেণীর এই পৌরসভায় যে ভাবে ভোটারের নাগরিক সেবা সু-নিশ্চিত করা হবে। পাশাপাশি  চলমান কার্যক্রম  সফল হলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চকরিয়া-পেকুয়া আসনে নৌকার প্রার্থীর বিজয়ে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে পৌরসভার ভোটাররা বলে তিনি জানান।