চকরিয়া-পেকুয়া আসনে এমপি ইলিয়াছ ছাড়া কাউকে মনোনয়ন দেয়া হবেনা: রাঙ্গা


চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়া-পেকুয়া জাতীয় পার্টির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে শুক্রবার(১৯ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৪টার সময় এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

চকরিয়া কোর্ট সেন্টারস্থ জাতীয় পার্টির প্রধান কার্যালয়ে উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন মেম্বারের সভাপতিত্বে ও জেলা জাতীয় পার্টির নেতা মো. নাজিম উদ্দিনের সঞ্চলানায় ওই মত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গা।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, সদ্য অনুষ্ঠিতব্য রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টি জয়ী হবে সেটা পূর্বেই থেকেই দলীয় নেতাকর্মীকে বলেছিলাম, ইনশাআল্লাহ অনেক ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মধ্যে আমরা জাতীয় পার্টি সরকার দলীয় প্রার্থীকে এক লক্ষ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে বিজয়ী হয়েছি।

প্রত্যেক এলাকায় ওয়ার্ড থেকে শুরু করে জেলা, উপজেলায়, ইউনয়ন শক্তিশালী কমিটি গঠনের মাধ্যমে দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীকে দলের প্রধান হাতিয়ার হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি, যার কারণে সিটির বিজয় নিশ্চিত হই।

এরশাদের শাসনামলে আজকের উপজেলা পরিষদ থেকে শুরু করে গ্রামীণ জনপদের প্রত্যেকটি বড় বড় উন্নয়ন তার হাত দিয়ে সৃষ্টি করা হয়। বর্তমানে টেলিভিশন যে আজান দেওয়া হচ্ছে তা চালু করেছিল এরশাদের আমলেই। তিনি মসজিদ, মাদ্রাসা, মন্দিরসহ ধর্মীয়ভাবে প্রতিটি কাজে ব্যাপক ভাবে এদেশের মাটিতে উন্নয়ন সাধন করেছেন। এদেশে এরশাদকে একটি কম্বল দিয়ে মাটিতে শুয়ে দেওয়া হয়েছিল। এরশাদ দেশে কোন অন্যায় কাজ করেনি। তার জন্য রংপুরে এরশাদ নিয়ে অনেক আন্দোলন সংগ্রাম করতে হয়েছে। রংপুরের মানুষ যে আন্দোলন করেছে তারপরও তাকে বিএনপির শাসনামলে ভোট দিতে দেয়নাই।

মন্ত্রী রাঙ্গা নেতাকর্মীকে উদ্দেশ্য করে আরো বলেন, দেখবেন আজকে থেকে পনের দিন পর এরশাদকে যে ভাবে মাটিতে একটা কম্বল দিয়ে শুয়ে দেয়া হয়েছিল ঠিক খালেদা জিয়াকেও মাটির বিচানার নিচে কম্বল নিয়ে শুতে হবে। মানুষের উপর অন্যায় করলে আল্লাহ তার উপর গজব নাজিল করেন এটা তার উদাহরণ।

এমপি ইলিয়াছ ও মুফিজকে জেলা জাতীয় পার্টি যে ভাবে শক্তিশালী সংগঠন করার দরকার তা করার জন্যও নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, আমি যদি প্রেসিডিয়ামে থাকি বা রংপুরের সভাপতি হিসেবে থাকি তাহলে আল্লাহর কসম করে বলছি কক্সবাজারের চকরিয়া-পেকুয়া আসন এমপি ইলিয়াছ ছাড়া কাউকে মনোনয়ন দেয়া হবেনা। তার মনোনয়ন নিয়ে নেতাকর্মীদের বিন্দু পরিমাণ সন্দেহের অবকাশ নেই। ইলিয়াছের ভয় নেই সঙ্গে আছে রাঙ্গা ভাই।

তার এ বক্তব্য শুনে উপস্থিত তৃণমূলের জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের মাঝে বাঁধভাঙ্গা উচ্ছাস-আনন্দে ফেটে উঠেন। মতবিনিময়ে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন চকরিয়া-পেকুয়া সংসদীয় আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি  হাজ্বী মো. ইলিয়াছ এমপি।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সহ-সভাপতি মোশারফ হোসেন দুলাল, জেলা মহিলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান(৩) নারী নেত্রী আসমাউল হোসনা, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি ও চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল আমিন প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় চকরিয়া, পেকুয়া, পৌরসভা ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা শাখার বিপুল পরিমাণ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *