parbattanews bangladesh

চকরিয়ায় সড়কে মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৪, আহত ১০


চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় ফের প্রাণ কোম্পানীর কাভার্ডভ্যান পিকাপের সাথে যাত্রীবাহি ইজি বাইক (টমটম) গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে ১ মহিলাসহ ৪ জন নিহত হয়েছে।

বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার হারবাং ইনানী রিসোর্টের সামনে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। এসময় টমটমের যাত্রী শিশুসহ ১০জন আহত হয় । স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলার সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) আধা কিলোমিটার অদূরে অপর সড়ক দূর্ঘটনায় ৩মহিলাসহ ৭ জন প্রাণ হারায়। সড়ক দূর্ঘটনায় নিহতরা হলেন, উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের জমিদার পাড়া ৪নং ওয়ার্ড এলাকার ছৈয়দ আহমদের পুত্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু তাহের(৫৫), ও একই ইউনিয়নের মুসলিম পাড়া এলাকার আবদু ছত্তারের পুত্র তাজ উদ্দিন(২৫), পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের দশের ঘোনা এলাকার আবদুল খালেকের পুত্র মো: ইউনুছ মিয়া (৩৫) ও ঘটনাস্থলে নিহত অজ্ঞাতনামা মহিলা (৪৩)।

তবে ঘটনাস্থলে নিহত মহিলার নাম এখনো সনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। নিহত ওই মহিলার লাশ বর্তমানে চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চট্টগ্রাম ছেড়ে আসা কক্সবাজারমুখি প্রাণ কোম্পানীর মালামাল বহনকারী একটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্টো ন-১১-৪৪১৪) হারবাং ইনানী রিসোর্ট এলাকার টানিং পয়েন্টে পৌছলে বিপরীত দিক থেকে আসা যাত্রীবাহী অপর একটি ইজি বাইক (টমটম) গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে এক নারীসহ ২জন নিহত হয়। পরে ঘটনাস্থলে আহতদেরকে উদ্ধার করে চকরিয়া সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পথে একজনের মৃত্যু হয়। এতে গুরুতর আহত মা ও শিশুকন্যাসহ ১০জন।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম থেকে প্রাইভেট কারযোগে চকরিয়ায় আসার পথে একই সময় দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন কালের কণ্ঠ চট্টগ্রাম ব্যুরো অফিসের স্টাফ রিপোর্টার আসিফ সিদ্দিকী (৪০), তার মা জওশন আরা বেগম (৬০) ও চালক মো. ইকবাল (৩২)। অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলেও দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন তারা। তাদেরকে চকরিয়া পৌরশহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত সাংবাদিক আসিফ সিদ্দিকী জানান, সকালে তাদের বহনকারী প্রাইভেট কারটি মহাসড়কের লোহাগাড়ার চুনতি মিডওয়ে-ইন রেস্টুরেন্টের কাছে পৌঁছালে সামনে থাকা স্টার লাইন পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস সেখানে যাত্রা বিরতির জন্য কোনও সংকেত না দিয়ে সড়কের ডান পাশ দিয়ে ঢুকে পড়ে। এই অবস্থায় তাদের বহনকারী গাড়িটির চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে মহাসড়ক থেকে ছিটকে পড়ে গাড়িটি গড়াগড়ি দিয়ে ধানক্ষেতে গিয়ে পড়ে। এতে আহত হন তারা।

চকরিয়া থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এক নারীসহ চারজন মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন তিনি। ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) খোন্দকার মো: ইখতিয়ার উদ্দিন আরফাত।

চকরিয়া থানার এসআই সুকান্ত চৌধুরী বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে চকরিয়া থানা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌছে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে গুরুতর আহতের চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সার্জেন্ট নুরে আলম ও এসআই মিজানুর রহমান বলেন, দুর্ঘটনা কবলিত কাভার্ড ভ্যান ও ইজিবাইক জব্দ করা হয়েছে। তবে কার্ভাড ভ্যান চালক পালিয়ে যায়। মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।